ন্যাভিগেশন মেনু

নেতা হয়েছি মানুষের জন্য: স্থানীয় সরকারমন্ত্রী


স্থানীয় সরকারমন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেছেন, নেতা হয়েছি, মানুষের জন্য নেতা হয়েছি। মানুষের যত সমস্যা আছে, সেসব নিয়ে ভাবতে হবে। তা সমাধান করতে হবে। আমি মন্ত্রী আছি, আপনি কাউন্সিলর। কেউই তো সারাজীবন থাকব না। থাকবে আমাদের অর্জন। আপনি একজন কাউন্সিলর, জনপ্রতিনিধি। অনেক ভোটার আপনাকে ভোট দিয়েছে। কয়েকজন কাউন্সিলর মিলেই একটা সমাজকে পরিবর্তন করতে পারে।

মঙ্গলবার (৫ জুলাই) রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের সদ্য নির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলরদের শপথ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

স্থানীয় সরকারমন্ত্রী বলেন, কুমিল্লা আমার বাড়ি। কুমিল্লার প্রতি আমার আলাদা সম্মান আছে। আমি একজন বিবেকবান মানুষ হিসেবে চাই, বাংলাদেশের মাটিতে কুমিল্লা শহর ঢাকার মতোই সমানভাবে অধিকার পাক। কুমিল্লার জন্য এ পর্যন্ত বৃহৎ কোনো উন্নয়ন বাজেট দেওয়া হয়নি।

তাজুল ইসলাম বলেন, জনপ্রতিনিধি যে দলেরই হোক না কেন, ভালো কাজের প্রশংসা তার করতে হবে। ভালো কাজের স্বীকৃতি না দেওয়ার কোনো কারণ নাই। কোনো জনপ্রতিনিধি যে দল থেকেই নির্বাচিত হোন না কেন, আপনারা দেশের জন্য, দেশের মানুষের জন্য ও স্বাধীনতা রক্ষার জন্য কাজ করে যাবেন।

তিনি বলেন, অন্য দল যারা করেন, তাদের সঙ্গে আওয়ামী লীগের দলীয় কোনো প্রতিনিধি কোনো প্রকার বিভেদে যাবেন না। যাওয়ার কোনো কারণও নেই।

মন্ত্রী আরও বলেন, আমরা অনুধাবন করছি, বাংলাদেশ গোটা বিশ্বের সামনে মাথা উচু করে দাঁড়াবে। বাংলাদেশে আওয়ামী লীগের হাত ধরেই স্বাধীনতা এসেছে। আওয়ামী লীগ যদি মানুষের অধিকারের দায়িত্ব না নিত, তাহলে স্বাধীনতা আসতো না। আমি যদি এদেশের মানুষের অধিকার, সত্তার কথা চিন্তা করি, তাহলে বঙ্গবন্ধুর কথা চিন্তা করতে হবে, বলতে হবে। এ কথা সবাই মানে, শুধু কিছু কুলাঙ্গার ছাড়া।

এসময় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে মেয়র আরফানুল হক রিফাতকে শপথবাক্য পাঠ করান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের ২৭ জন সাধারণ কাউন্সিলর ও ৯ জন সংরক্ষিত কাউন্সিলরকে শপথবাক্য পাঠ করান স্থানীয় সরকারমন্ত্রী তাজুল ইসলাম।