NAVIGATION MENU

‘করোনায় ভারত-চীনের চেয়েও নিরাপদ বাংলাদেশের অর্থনীতি’


করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে গোটা বিশ্ব প্রায় স্তব্ধ। বন্ধ সব কল-কারখানা। আয়-উপার্জন নেই। এমনকি আভাস মিলছে বিশ্ব অর্থনীতি পঙ্গু হয়ে যেতে বসেছে। সেই পরিস্থিতিতেও বাংলাদেশের অর্থনীতি তুলনামূলক নিরাপদ অবস্থানে আছে। 

করোনা পরিস্থিতিতে অর্থনীতির নিরাপত্তা নিয়ে গবেষণা তালিকা প্রকাশ করেছেন আন্তর্জাতিক সাপ্তাহিক নিউজ পেপার দ্যা ইকোনমিস্ট। 

লন্ডনভিত্তিক সংবাদমাধ্যমটি বলছে, করোনা ভাইরাসের ভয়াবহতাও ভারত-চীন কিংবা সংযুক্ত আরব আমিরাতের মতো দেশের চেয়েও তুলনামূলকভাবে নিরাপদ বাংলাদেশের অর্থনীতি। সেই হিসেবে বাংলাদেশের অনেক পেছনে রয়েছে পাকিস্তান।

দ্যা ইকোনমিস্ট বলছে, করোনা ভাইরাসের মহামারী পরিস্থিতিতেও ৬৬টি উদীয়মান সবল অর্থনীতির দেশের মধ্যে বাংলাদেশকে ৯ম শক্তিশালী অর্থনীতির দেশ হিসেবে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে।

চারটি সম্ভাব্য সংস্থার নির্বাচিত অর্থনীতির দুর্বলতা পরীক্ষা করে র‌্যাঙ্কিংটি করা হয়েছে। এদের মধ্যে রয়েছে জনগণের ঋণ হিসেবে জিডিপির শতাংশ, বৈদেশিক ঋণ, ঋণের সুদ, রিজার্ভ কভার।

সেই র‌্যাঙ্কিং অনুযায়ী, উল্লেখিত সূচকগুলির মধ্যে বাংলাদেশের অর্থনীতি শক্তিশালী বা তুলনামূলকভাবে শক্তিশালী হিসাবে প্রদর্শিত হয়েছে।

তবে এই তালিকার শীর্ষে রয়েছে বোটসওয়ানা আর সবচেয়ে ঝুঁকিতে রয়েছে ভেনিজুয়েলা। তালিকায় চীনের অবস্থান দেখানো হয়েছে বাংলাদেশের পরে। চীন রয়েছে ১০ম অবস্থানে। আর সৌদি আরবের অবস্থান দেখানো হয়েছে ৮এ।

অর্থনীতিবিদের করা ওই তালিকা মতে, প্রতিবেশী দেশ ভারতের অবস্থান রয়েছে ১৮ তে, পাকিস্তান রয়েছে ৪৩ তম অবস্থানে। আর ভারতের কাছেই রয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। দেশটির অবস্থান ১৭।

ওআ