NAVIGATION MENU

হ্যান্ড স্যানিটাইজার দিয়ে ফোন পরিষ্কার করলে মারাত্মক ক্ষতি


বিশ্বজুড়ে করোনার ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার কারণে, মানুষ বারবার সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে স্যানিটাইজার ব্যবহার করার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।  সংক্রামিত হওয়ার ভয়ে, বেশিরভাগ মানুষ স্যানিটাইজেশন এবং মাস্ক পরে বেরিয়ে যাচ্ছেন।এমন পরিস্থিতিতে, অনেক লোক স্যানিটাইজার ব্যবহার করে তাদের ফোনটিও জীবাণুমুক্ত করছেন। তবে জানলে অবাক হবেন, ফোন স্যানিটাইজেশনের সময় বিশেষ কিছু বিষয়ে নজর না রাখলে, আপনার ফোন নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। জেনে নেওয়া যাক মোবাইল স্যানিটাইজেশন করার সময় কোন কোন বিষয়ে নজর রাখবেন-

স্ক্রিন এবং স্পিকার

অনেকেই ফোন পরিষ্কার করতে অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল ওয়েট-ওয়াইপ ব্যবহার করেন। আবার অনেকে হ্যান্ড স্যানিটাইজার সরাসরি মোবাইলে ব্যবহার করছেন। অ্যালকোহলযুক্ত একটি স্যানিটাইজার ফোনের উপরে ঘষে তা জীবানু মুক্ত করা হচ্ছে। তবে আপনি জানেন কি যে, এই ভাবে মোবাইল স্যানিটাইজ করলে আপনার ফোনের ক্ষতি করতে পারে। স্যানিটাইজার আপনার ফোনের স্ক্রিন, হেডফোন জ্যাক এবং স্পিকারকেও ক্ষতি করতে পারে।

শর্ট সার্কিট

করোনার পরে, ফোন মেরামত কেন্দ্রে ফোন খারাপ হওয়া ফোনের সংখ্যা উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। মেরামত কেন্দ্রে আসা বেশিরভাগ ফোনই স্যানিটাইজার দিয়ে পরিষ্কার করা হয়েছে। অনেকেই মোবাইল এমনভাবে স্যানিটাইজ করছেন যে স্যানিটাইজারটি ফোনের স্পিকারের ভিরতে প্রবেশ করেছে। এছাড়াও ফোনে শর্ট সার্কিট হওয়ার ঝুঁকিও রয়েছে।

ডিসপ্লে এবং ক্যামেরার ক্ষতি

স্যানিটাইজার দিয়ে ফোনটি পরিষ্কার করা হলে তা আপনার ফোনের রঙও পরিবর্তন করে ফেলতো পারে। অ্যালকোহল-ভিত্তিক স্যানিটাইজার ফোনের ডিসপ্লে এবং ক্যামেরার লেন্সের ক্ষতি করতে পারে। এতে ফোনের ডিসপ্লেটি হলুদ হয়ে যেতে পারে।

অ্যান্টি ব্যাকটেরিয়াল পেপার

মোবাইল পরিষ্কারের জন্য একটি নিরাপদ ব্যাকটেরিয়াল টিস্যু পেপারও রয়েছে। আপনি যে কোনও মেডিকেল স্টোর থেকে এই ওয়াইপগুলি কিনতে পারেন। এই কাগজগুলির সাহায্যে আপনি আপনার ফোনটি পরিষ্কার করতে পারেন। এই ওয়াইপগুলি খুব শুষ্ক যার কারণে মোবাইলের কোনও ক্ষতি হয় না।

ওআ/