NAVIGATION MENU

বিজ্ঞান-বিজ্ঞানীদের কাছে আমাদের প্রত্যাশা অনেক


মির্জা মুনির:

বিজ্ঞান বা বিজ্ঞানীদের কাছে আমাদের প্রয়োজন বা প্রত্যাশা আছে। তবে তাদের আমাদের কাছে তেমন কোন প্রয়োজন নেই তেমন একটা বাস্তবে।

একজন সেলিব্রেটি যা ইনকাম করেন একজন রাষ্টনায়ক যা অর্জন/ ইনকাম বা ব্যয় করেন -- একজন বিজ্ঞানী বা গবেষক সেক্ষেত্রে খুব নগন্যই করেন বা পান।

কিন্তু সব আবিষ্কার -- প্রয়োগ-- মনোবিজ্ঞান বস্তুবাদ -- বা বিজ্ঞান বা বিজ্ঞানীর দ্বারাই হয়ে থাকে। আর তাই একজন সেলিব্রেটি আজকের প্রয়োজনে বা তার নিত্যদিনের প্রয়োজনে যা খরচ করেন বা একজন রাষ্ট্রনায়ক রাষ্ট্রক্ষমতায় সমরাস্ত্র এর ক্ষেত্রে যে পরিমাণ খরচ করেন একজন বিজ্ঞানী বা বিশেষজ্ঞ তার সৃষ্টির জন্য নামমাত্রই করতে পারেন। আর এখানেই বিপত্তি আজকে বিশেষজ্ঞের গবেষণায় গবেষণার ক্ষেত্রে অগ্রগতি নেই। ফলে বিশ্ব আজ সাফার করছে বিজ্ঞানের অভাবে।

যেমন – একজন  রাষ্ট্র- বিশৃঙ্খলায় আইনজ্ঞ বা আইনজীবী বা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর শরনাপন্ন হন।

বিনোদনের ক্ষেত্রে সর্বসাধারণ একজন সেলিব্রেটির উপর কিন্তু বিজ্ঞান গবেষক বা গবেষণার ক্ষেত্রে তাদের উপর বিজ্ঞানের প্রয়োজনও ক্ষমতা অর্পিত হয়না-- হলেও লোক দেখেনো -- আদতে পরিচালিত হয় ডিক্টেটরের  দ্বারা বা রাষ্ট্রনায়ক দ্বারা। আর এতেই বিপত্তি ঘটেছে বর্তমান বিশ্বের। তাই শরীর চলে সমাজতত্ত্বের প্রক্রিয়ায় আর মস্তিষ্ক চলে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায়।

শরীর প্রয়োজন ছাড়া নেয় না। আর মস্তিষ্ক সব পেয়েও ছাড়েনা। একজন বিজ্ঞানী প্রয়োজন ছাড়া নেয়না। আর একজন রাষ্ট্রনায়ক সব পেয়েও ছাড়েনা।

তাই বিজ্ঞানী / গবেষকদের বর্তমানের সর্বময় ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত করে এবং তাদের সহযোগিতায় সকলকে একত্রিত করে। বর্তমান সমস্যার সমাধান খুজলে সফল হবেন নিশ্চয়ই।।

সর্বোপরি -পরিবার/সদস্য -প্রফেশনাল /প্রফেশন-বিশেষজ্ঞ - রাষ্ট্র- একই সমান্তরালে সমন্বিতভাবে এগিয়ে যাওয়াই করোনায় বিজয়।।

এস এস