NAVIGATION MENU

বিএনপি আবারও আগুন সন্ত্রাসে মেতে উঠেছে: কাদের


শান্তিপূর্ণ আন্দোলন ও রাজনৈতিক কর্মসূচি পালনের সুযোগ নিয়ে বিএনপি আবারও আগুন সন্ত্রাসে মেতে উঠেছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

রবিবার (১৫ নভেম্বর) সকালে নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি সম্মেলনে মন্ত্রী তার সরকারি বাসভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যুক্ত হয়ে এ মন্তব্য করেন।

জনগণকে আগুনে পুড়িয়ে বিএনপি জনগণের জন্য আন্দোলন করছে, এটা তাদের তামাশা ছাড়া আর কিছু নয় উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘আগুন সন্ত্রাস ও অপকর্ম যারা করে তাদের পৃষ্ঠপোষকদেরও খুঁজে বের করা হবে।’

তিনি বলেন, ‘নিজেদের অপরাধ অন্যের ওপর চাপানো বিএনপির অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। তারা নিজেদের ব্যর্থতার দায়ভার আর কর্মীদের রোষানল থেকে বাঁচতে কোনো উপায় না পেয়ে সরকারের বিরুদ্ধে বিষোদগার করে। কিন্তু তাদের রাজনৈতিক চরিত্র জানে দেশের মানুষ।‘

মন্ত্রী বলেন, ‘উপ-নির্বাচনে জনগণ তাদের প্রত্যাখ্যান করায় ক্ষুব্ধ বিএনপি সেদিন বাসে আগুন লাগিয়েছে। সেই ঘটনায় বিএনপি দুই নেতা নিতাই রায় ও ফরিদার একটি ফোনালাপ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হাতে এসেছে। এটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।’

তিনি বলেন নেতাকর্মীদের বলেন, ‘দুঃসময়ের ত্যাগী নেতাদের মূল্যায়ন করুন, এরাই বিপদে পাশে থাকবে, আর সুবিধাভোগীদের হাজার পাওয়ারের বাতি জ্বালিয়েও খুঁজে পাওয়া যাবে না। ক্ষমতার দাপট দেখাবেন না, ক্ষমতা চিরস্থায়ী না।’

সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘সাংগঠনিক ঐক্যের বিকল্প নেই। সাংগঠনিক ঐক্য না থাকলে দলের রক্তক্ষরণ হয়। বিরোধীদলের সমালোচনা করার পরিবর্তে আমরা নিজেরাই নিজেদের আক্রমণ করি। আমাদের এরূপ আচরণ মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তিকে বিব্রত করে, শেখ হাসিনাকে প্রশ্নবিদ্ধ করে। এসব বন্ধ করতে হবে। নিজেদের লোক দিয়ে পকেট কমিটি করা যাবে না। ত্যাগীদের বাইরে রেখে কোনো কমিটি হবে না।’

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, ‘সরকার নিজের দলের কাউকেই দুর্নীতি ও অপরাধ জড়ালে ছাড় দিচ্ছে না। তার প্রমাণ দুদক স্বাধীনভাবে কাজ করছে। অনেক বড় বড় প্রতারকরা আইনের আওতায় এসেছে। একটি দল ক্ষমতায় থাকা অবস্থায় নিজেদের অপরাধী নেতাকর্মীদের আইনের আওতায় আনতে পারে, সেই সৎ সাহস ও অঙ্গীকার এদেশে একমাত্র আওয়ামী লীগেরই আছে।’

নাটোর জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আব্দুল কুদ্দুসের সভাপতিত্বে এ সময় অন্যান্যের মধ্যে আরও বক্তব্য রাখেন - আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য আখতার জাহান, নাটোর-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও তথ্য যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, নাটোর-২ আসনের সংসদ সদস্য শফিকুল ইসলাম শিমুল, নাটোর-১ আসনের সংসদ সদস্য শহিদুল ইসলাম বকুল, সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য রত্না আহমেদ, রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ডাবলু সরকার জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আবুল কালাম আজাদ।

এমআইআর/এডিবি