NAVIGATION MENU

ফোন ইচ্ছা করে ভাঙিনি, পূজাও উদ্বোধন করিনি: সাকিব


গত সপ্তাহে কলকাতায় গিয়ে কালীপূজার অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেছেন বাংলাদেশ সেরা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান। এমন খবর চাউর হওয়ার পরই দেশজুড়ে সাকিবকে নিয়ে কঠোর সমালোচনা শুরু হয়।

এ ঘটনার জন্য ‘মহসিন তালুকদার’ নামের একটি ফেসবুক আইডি থেকে সাকিবকে হত্যার হুমকি দেয়া হয়। হুমকি দেয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই ফেসবুক লাইভে এসে ক্ষমা চাইলেন সাকিব আল হাসান।

সোমবার (১৬ নভেম্বর) নিজের ফেসবুক পেজে বিষয়টি পরিষ্কার করেন সাকিব। ভক্তদের অনুরোধ করেন, তাকে ভুল না বুঝতে।

সাকিব বলেন, ‘দুটো বিষয় পরিষ্কার করার জন্য এই ভিডিও। প্রথমটি ফোন ভাঙা নিয়ে। যার ফোন ভাঙা নিয়ে কথা হচ্ছে, তার ফোনটি আমি কখনই ভাঙিনি। করোনার মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার চেষ্টা করছিলাম। স্বাভাবিকভাবে একজন ভক্ত শরীরের ওপর এসে ছবি তুলতে যান। আমি হাত দিতে সরিয়ে দিতে গেলে ফোনটা পড়ে যায়। ভেঙেও গিয়ে থাকতে পারে। এজন্য আমি দুঃখিত। আর তারও সতর্ক থাকতে হতো। করোনার সময় আমাদের সকলেরই সতর্ক থাকা উচিত।’

এরপর সাকিব বলেন, ‘দ্বিতীয় বিষয়টি খুবই সংবেদনশীল। আমি নিজেকে একজন গর্বিত মুসলিম মনে করি। সেটা পালন করারও চেষ্টা করি। তবে ভুল-ত্রুটি নিয়েই আমরা জীবনে চলাচল করি। ভুল-ক্রুটি হবেই। আমার কোন ভুল হয়ে থাকলে অবশ্যই আমি ক্ষমা প্রার্থনা করছি। কারো মনে কষ্ট দিয়ে থাকলে সেজন্য আমি ক্ষমা চাচ্ছি। সামাজিক মাধ্যম ও সংবাদ মাধ্যমে এসেছে, আমি পূজার উদ্বোধন করেছি। যেটার জন্য আমি আসলে কলকাতা যাইনি, পূজার উদ্বোধনও করিনি। আমন্ত্রণপত্র দেখলে এটার প্রমাণ আপনারা অবশ্যই পাবেন। পূজার উদ্বোধক ছিলেন ফিরহাদ হাকিম। তিনি পশ্চিমবঙ্গ সরকারের মন্ত্রীর কলকাতা পৌরসভার প্রশাসনিক প্রধান। আমি ওই অনুষ্ঠানে যাওয়ার আগেই তিনি পূজার উদ্বোধন করে গেছেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘হয়তো ওখানে যাওয়াটাই আমার ঠিক হয়নি। যদি সেটা আপনারা মনে করে থাকেন, অবশ্যই আমি এজন্য দুঃখিত। ভবিষ্যতে এমন ঘটনার যেন পুনরাবৃত্তি না হয় আমি সেই চেষ্টা করবো।’


ওআ/