NAVIGATION MENU

জাপানের সঙ্গে আরো দুটি মেট্রোরেল চুক্তি হবে


বাংলাদেশের উন্নয়নের লক্ষ্য নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জাপান সফর খুবই তাৎপর্যপূর্ণ।

তাঁর এ জাপান সফরকালে দুটি মেট্রোরেল ও যমুনায় পৃথক রেল সেতুসহ মোট ছয়টি প্রকল্পের ঋণচুক্তি অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন ইআরডি’র এক উর্ধতন কর্মকর্তা। তিনি বলেন, বাংলাদেশের জনগণের জন্য প্রকল্পগুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

মেট্রোরেল প্রকল্পের আওতায় ২৮ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের এমআরটি-১ এয়ারপোর্ট-খিলক্ষেত-বারিধারা-বাড্ডা-রামপুরা-মৌচাক হয়ে কমলাপুরে মিলিত হবে।

খিলক্ষেত-পূর্বাচল কাঞ্চন ব্রিজ পর্যন্ত লুপ লাইনও থাকবে এ রুটে। অন্যদিকে ১৩ কিলোমিটারের এমআরটি-৫ বিস্তৃত হবে গাবতলী-টেকনিক্যাল-মিরপুর-১, ১০ ও ১৪ এবং বনানী-গুলশান-২ হয়ে ভাটারা পর্যন্ত। এ দুটি প্রকল্পে ১০৪ দশমিক ৩৭ কোটি ডলার দেবে জাপান।

বঙ্গবন্ধু সেতু রক্ষা করতে এবার এর পাশদিয়ে ফোরলেন ডুয়েলগেজ রেলসেতু নির্মাণ করা হবে।  সম্পূর্ণ স্টিল দিয়ে সেতুটি নির্মাণ করা হবে। এ প্রকল্পে মোট ব্যয় হবে ৯ হাজার ৭৩৪ কোটি টাকা এরমধ্যে জাইকা ৭ হাজার ৭২৪ কোটি টাকা দেবে। ঋণে সুদের হার ০ দশমিক ৯৫ শতাংশ। ১০ বছরের গ্রেস প্রিরিয়ডসহ ৩০ বছরে বাংলাদেশকে ঋণ পরিশোধ করতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আসন্ন জাপান সফরে এ বিষয়গুলো নিয়ে দুই দেশের মধ্যে চুক্তি সই হবে। বাংলাদেশের সঙ্গে ৪০তম সরকারি উন্নয়ন সহযোগিতার (অফিশিয়াল ডেভেলপমেন্ট অ্যাসিস্ট্যান্স-ওডিএ) আওতায় প্রায় ২০ হাজার ৩ কোটি টাকা উন্নয়ন সহায়তা দেবে জাপান। ঋণচুক্তি গুলোতে স্বাক্ষর করবেন বাংলাদেশের অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) অতিরিক্ত সচিব মনোয়ার আহমেদ ও জাইকা প্রতিনিধি।

এমআইআর /এসএস