NAVIGATION MENU

আত্মহত্যা সমাধান নয়, আল্লাহর পরিকল্পনায় বিশ্বাস রাখুন: মুশফিক


শনিবার রাতে আত্মহত্যা করেছেন ২০১৮ সালের অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ দলের স্ট্যান্ডবাই ক্রিকেটার সজীবুল ইসলাম সজীব। জুনিয়র এই ক্রিকেটারের আত্মহনন কোনওভাবেই মেনে নিতে পারছেন না মুশফিকুর রহিম। তাই সবাইকে সচেতন করার লক্ষ্যে তিনি ফেসবুকে সরব হয়ে বলেছেন, আত্মহত্যা কোনও সমাধান নয়।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে মুশফিক লিখেছেন, ‘আমরা সবাই ক্রিকেট খেলাটি ভালোবাসি। তবে একটা জিনিস মনে রাখবেন, ক্রিকেটের বাইরেও একটা জীবন আছে। আমাদের দেশের প্রতিভাবান খেলোয়াড় মোহাম্মদ সজীবের আত্মহত্যার খবরে আমি অত্যন্ত মর্মাহত।’

‘ঘটনা যাই হোক না কেন, আমি সবাইকে অনুরোধ করব আত্মহত্যার মতো সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে নিজের পরিবার ও ভালোবাসার মানুষদের ব্যাপারে ভাবুন। আত্মহত্যা কখনও সমাধান। আমাদের সবার জন্য আল্লাহর নির্দিষ্ট পরিকল্পনা রয়েছে। তার পরিকল্পনায় আমাদের বিশ্বাস রাখতে হবে।’

‘বিদেহী আত্মা ও তার পরিবারের জন্য দোয়া রইল। ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।’

স্বজনদের দাবি, আসন্ন বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে সুযোগ না পাওয়ার হতাশা থেকেই আত্মহত্যা করেছে সজিব।

সজিবের বড় ভাই তশিকুল ইসলাম বলেন, সজিবের ছোটবেলা থেকেই ক্রিকেটের প্রতি অনেক আগ্রহ ছিলো। এ জন্য অনেক বকাও খেতে হয়েছে পরিবারের কাছে। এক সময় সে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত খেলোয়াড় হিসেবে গড়ে তুলতে ভর্তি হয় রাজশাহী কাটাখালি ‘বাংলা ট্র্যাক’ নামে একটি ক্রিকেট অ্যাকাডেমিতে। সেই ক্রিকেট অ্যাকাডেমির সিইও এবং হেড কোচ হলেন খালেদ মাহমুদ সুজন।

সজিব অনূর্ধ্ব-১৫, ১৭ ও ১৯ দলে খেলেছেন। তিনি জাতীয় অনূর্ধ্ব-১৯ দলের খেলোয়াড় হয়ে শ্রীলঙ্কা সফরে গিয়েছিলেন। এমনকি ভারতের বিপক্ষে ৯৫ রানের একটা ইনিংসও রয়েছে তার।

সাম্প্রতিক সময়ে সজিব বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে খেলার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। তবে প্লেয়ারস ড্রাফটে তার নাম না থাকায় কোনো দল পাওয়ার সম্ভাবনা ছিল না।

ওআ/