NAVIGATION MENU

অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপজয়ী ক্রিকেটার সজিবের আত্মহত্যা


অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপজয়ী ক্রিকেট দলের সদস্য সজিবুল ইসলাম সজিব আত্মহত্যা করেছেন। 

শনিবার (১৪ নভেম্বর) দিবাগত রাতে রাজশাহীর দুর্গাপুরে নিজ ঘরে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে গলায় রশি পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন।

সজিব উপজেলার ঝালুক গ্রামের মোরশেদ আলীর ছেলে।

স্বজনদের দাবি, আসন্ন বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে সুযোগ না পাওয়ার হতাশা থেকেই আত্মহত্যা করেছে সজিব।

সজিবের বড় ভাই তশিকুল ইসলাম বলেন, সজিবের ছোটবেলা থেকেই ক্রিকেটের প্রতি অনেক আগ্রহ ছিলো। এ জন্য অনেক বকাও খেতে হয়েছে পরিবারের কাছে। এক সময় সে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত খেলোয়াড় হিসেবে গড়ে তুলতে ভর্তি হয় রাজশাহী কাটাখালি ‘বাংলা ট্র্যাক’ নামে একটি ক্রিকেট অ্যাকাডেমিতে। সেই ক্রিকেট অ্যাকাডেমির সিইও এবং হেড কোচ হলেন খালেদ মাহমুদ সুজন।

সজিব অনূর্ধ্ব-১৫, ১৭ ও ১৯ দলে খেলেছেন। তিনি জাতীয় অনূর্ধ্ব-১৯ দলের খেলোয়াড় হয়ে শ্রীলঙ্কা সফরে গিয়েছিলেন। এমনকি ভারতের বিপক্ষে ৯৫ রানের একটা ইনিংসও রয়েছে তার।

সাম্প্রতিক সময়ে সজিব বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে খেলার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। তবে প্লেয়ারস ড্রাফটে তার নাম না থাকায় কোনো দল পাওয়ার সম্ভাবনা ছিল না।

দুর্গাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাসমত আলী বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। স্বজনদের অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতে ময়নাতদন্ত ছাড়াই মরদেহ দাফনের অনুমতি দেওয়া হয়। রবিবার সন্ধ্যার আগে সজিবের মরদেহ পারিবারিক কবর স্থানে দাফন করা হয়েছে।

এডিবি/