ন্যাভিগেশন মেনু

শাইখুল ইসলাম রতন

Staff Correspondent
শাইখুল ইসলাম রতন
Jan 29, 2023

জাতীয়

এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হবে আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি

এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হবে আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্মতিতে আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি এইচএসসি-সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হবে।আন্তশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটির আহ্বায়ক ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান তপন কুমার সরকার রোববার (২৯ জানুয়ারি) সকালে এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, সকাল ১০টার মধ্যে শিক্ষামন্ত্রী দেশের সব শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে ফলাফলের সারসংক্ষেপ তুলে দেবেন।পরে সংবাদ সম্মেলন করে আনুষ্ঠানিকভাবে ফলাফলের বিস্তারিত তুলে ধরবেন তিনি।করোনা পরিস্থিতি অনেকটা স্বাভাবিক হওয়ায় গত বসর ৬ নভেম্বর সারা দেশে অনেকটা স্বাভাবিক পরিবেশে একযোগে শুরু হয় এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। করোনাভাইরাস মহামারী ও বন্যার কারণে এবার সময় বদলে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হয় ৬ নভেম্বর থেকে । নয়টি সাধারণ শিক্ষাবোর্ড, মাদ্রাসা বোর্ড ও কারিগরি বোর্ড মিলিয়ে ১২ লাখ ৩ হাজার ৪০৭ জন শিক্ষার্থী।মোট ১১টি শিক্ষা বোর্ডের মধ্যে ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের অধীনে ৯ হাজার ১৮১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৬ লাখ ২২ হাজার ৭৯৬ জন ছাত্র এবং ৫ লাখ ৮০ হাজার ৬১১ জন ছাত্রী মোট ১ হাজার ৫২৮টি কেন্দ্রে পরীক্ষায় অংশ নিয়েছেন। ।মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে আলিম পরীক্ষায় অংশ নিয়েছেন মোট পরীক্ষার্থী ৯৪ হাজার ৭৬৩ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৫১ হাজার ৬৯৫ জন এবং ছাত্রী ৪৩ হাজার ৬৮ জন। মোট ২ হাজার ৬৭৮টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পরীক্ষার্থীরা মোট ৪৪৮টি কেন্দ্র অংশ নেন।কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এইচএসসি (বিএম/বিএমটি), এইচএসসি (ভোকেশনাল), ডিপ্লোমা-ইন-কমার্স পরীক্ষায় ১ লাখ ২২ হাজার ৯৩১ জন অংশ নেন। এর মধ্যে ছাত্র ৮৮ হাজার ৯১৮ জন এবং ছাত্রী ৩৪ হাজার ১৩ জন। মোট ১ হাজার ৮৫৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৬৭৩টি কেন্দ্রে পরীক্ষায় অংশ নেন পরীক্ষার্থীরা।এবারও পূর্বের ন্যায় বিষয়, নম্বর ও সময় কমিয়ে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা নেওয়া হয়। আগের শিক্ষাবর্ষের মত সিলেবাসও ছিল সংক্ষিপ্ত। পরীক্ষা শেষ হওয়ার দুই মাসের মধ্যে ফলাফল প্রকাশের চেষ্টা করে শিক্ষাবোর্ডগুলো। ১২ লাখ শিক্ষার্থীর অপেক্ষার অবসান শেষ করে আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি বেলা ১২টার পর থেকে ফলাফল জানতে পারবে শিক্ষার্থীরা।...


Jan 28, 2023

জাতীয়

ছাত্রলীগ সহ সম্মেলন করা সংগঠনকে দ্রুত পূর্ণাঙ্গ কমিটি করার নির্দেশ -ওবায়দুল কাদের

ছাত্রলীগ সহ সম্মেলন করা সংগঠনকে দ্রুত পূর্ণাঙ্গ কমিটি করার নির্দেশ -ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি দ্রুত সম্পন্ন করতে নির্দেশ দিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।ছাত্রলীগ ও আওয়ামী লীগের উপ-কমিটি গুলোতে দ্রুত পূর্ণাঙ্গ কমিটি করার নির্দেশ দিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘সম্মেলনের আগে দলীয় কার্যালয়ে নেতাকর্মীদের ব্যাপক  উপস্থিতি দেখা গেলেও এখন সেভাবে দেখা যায় না, ‘সম্মেলন চলে গেছে, অনেকেরই একটু গা-ছাড়া ভাব। পার্টি অফিসে সন্ধ্যায় গেলে লোকই দেখা যায় না। আগে তো ঢুকতেই পারতাম না।এখন মনে হচ্ছে, প্রার্থী হয়ে তো লাভ নেই, সেজন্য গা-ছাড়া ভাব আছে। গা ঝাড়া দিয়ে উঠুন।’রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ২৭ জানুয়ারি দলের ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণ শাখা এবং সহযোগী সংগঠনের নেতাদের সঙ্গে বর্ধিত সভায় সভাপতির বক্তব্যে এ নির্দেশ দেন তিনি।সম্মেলন করা সংগঠনের কমিটি দ্রুত করার নির্দেশ দিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘উপ- কমিটির চেয়ারম্যান ও সদস্য সচিবের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। কাজেই উপ-কমিটিগুলোতে নতুন করে কমিটি করতে হবে। সেই প্রক্রিয়াটা যার যার বিভাগ থেকে উদ্যাগ নেবেন। এটা আমি বিশেষভাবে অনুরোধ করছি।’‘আর যারা যে বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা আছেন, তাদের কাছে অনুরোধ করব, সম্মেলন হয়ে গেছে অনেকদিন, কিন্তু পূর্ণাঙ্গ কমিটি এখনো জমা হয়নি। আমাদের বিভাগীয় দায়িত্বপ্রাপ্তরা আমাকে জানাবেন, এই কমিটি ঠিক আছে কি না উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমার কাছে কালকে অফিস থেকে ২৯টি কমিটি এসেছে। এখন এগুলো আমার জানতে হবে বিভাগীয় দায়িত্বপ্রাপ্তরা কমিটি দেখেছেন কি না। তারা দেখলে আমি নেত্রীর সঙ্গে আলাপ করে অনুমোদন দিতে পারি।’এ সময়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, ‘সহযোগী সংগঠন স্বাচিপের (স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ) এখনও কমিটি করার উদ্যোগই নেই। ছাত্রলীগের সম্মেলন হয়ে গেছে অনেক দিন এখনো পূর্ণাগ কমিটি প্রদান করে নাই। মহিলা আওয়ামী লীগ অফিসে যাওয়া যায় না মহিলাদের লাইন। এখনো পূর্ণাঙ্গ কমিটি হয়নি। যুব মহিলা লীগেরও পূর্ণাঙ্গ কমিটি হয়নি।’ তাই যত দ্রুত সম্ভব আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি সম্পন্ন করতে বলছি।‘এ সময় সভায় আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম...


Jan 26, 2023

জাতীয়

গুজব, বিভ্রান্তি অসত্য তথ্যের বিরুদ্ধে ডিসিদের ব্যবস্থা নিতে বললেন তথ্যমন্ত্রী

গুজব, বিভ্রান্তি অসত্য তথ্যের বিরুদ্ধে ডিসিদের ব্যবস্থা নিতে বললেন তথ্যমন্ত্রী

ভুল তথ্য পরিবেশন এবং গুজব ও বিভ্রান্তি ছড়ানোর বিরুদ্ধে  ব্যবস্থা নিতে জেলা প্রশাসকদের নির্দেশ দিয়েছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী হাছান মাহমুদ।বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে জেলা প্রশাসক সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশন এ নির্দেশ দেন তিনি।মন্ত্রী বলেন, অনিবন্ধিত অনলাইন মাধ্যমে অনেক সময়ই ভুল তথ্য পরিবেশন করা হচ্ছে এবং গুজব ও বিভ্রান্তি ছড়ানো হচ্ছে, যেগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে।তিনি বলেন, ‘আমরা এখন পর্যন্ত ১৭০টি অনলাইন পোর্টালকে নিবন্ধন দিয়েছি। পত্রিকার অনলাইন হিসেবে আরও ১৭০টির মতো নিবন্ধন দেওয়া হয়েছে। এর বাইরে টেলিভিশনের অনলাইন পোর্টাল হিসেবে আরো ১৫-১৬টি অনলাইনকে নিবন্ধন দেওয়া হয়েছে।”হাছান মাহমুদ বলেন, ‘জেলা পর্যায়ে অনেকগুলো অনিবন্ধিত অনলাইন পোর্টাল পরিচালিত হয়। আমরা এ পর্যন্ত ১২টি আইপিটিভিকে নিবন্ধন দিয়েছি। এর বাইরে কোনো আইপিটিভি নিবন্ধিত নয়। বাকি যা আছে সবগুলো অনিবন্ধিত।’ এগুলো নিয়ন্ত্রণ করা আমাদের জন্য একটি বড় চ্যালেঞ্জ।’জেলা প্রশাসক সম্মেলনের গুরুত্ব উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘জেলা প্রশাসক সম্মেলন সরকারের প্রশাসনের একটি নিয়মিত কার্যক্রম। সরকারের কার্যক্রমগুলো বাস্তবায়ন করা হয় জেলা প্রশাসনের মাধ্যমে। কারণ সাধারণ জনগণ জেলা প্রশাসনকেই সবসময় কাছে পায়।’এসময় মন্ত্রী আরও বলেন, ‘আমরা জেলা প্রশাসকদের বলেছি, আপনারা যদি দেখেন কেউ বিভ্রান্তি, গুজব ও অসত্য সংবাদ ছড়াচ্ছে, সেগুলোর বিষয়ে আপনারা আইনগত ব্যবস্থা নেবেন। আমাদেরকে জানানো হলে আমরা তড়িৎ ব্যবস্থা নিতে পারব। একসঙ্গে বিভ্রান্তিকর তথ্যের পাশাপাশি সঠিক সংবাদটিও যেন প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়।’তিন দিনব্যাপী ‘জেলা প্রশাসক সম্মেলন-২০২৩’ গত মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে  উদ্বোধন করে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘‘প্রতিটি গ্রামের মানুষকে আমরা শহরের সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা দিয়ে যেতে চাই। তাতে শহরমুখী প্রবণতা কমে যাবে, গ্রামে অর্থনৈতিক কর্মচাঞ্চল্য বৃদ্ধি পাবে। আমাদের উন্নয়ন শুধু রাজধানীকেন্দ্রিক বা শহরকেন্দ্রিক হবে না। যে কারণে আমি ইতিমধ্যে ঘোষণা দিয়েছি- আমার গ্রাম, আমার শহর।’ ...


Jan 24, 2023

জাতীয়

তিন দিনব্যাপী ডিসি সম্মেলনের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

তিন দিনব্যাপী ডিসি সম্মেলনের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের শাপলা হল থেকে ২৫ দফা দিক নির্দেশনা প্রদান সহ  তিন দিনব্যাপী  ডিসি সম্মেলনের উদ্বোধন  করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।  ডিসি সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘’আজকে আমরা যাঁরা জনগণের নির্বাচিত প্রতিনিধি যতটুকু সুযোগ সুবিধা পাই, আপনারাও সরকারি আমলা হিসেবে যে সুযোগ সুবিধা পান এগুলোর অবদান তো জনগণের। কারণ জনগণের অর্থ, জনগণের ট্যাক্সের টাকা দিয়েই তো সব কিছু চলে। জনগণের উন্নয়নের প্রচেষ্টা আমরা চালাচ্ছি’’।‘’বিভিন্ন খাতে ব্যয়ে সতর্কতা অবলম্বন করছে সরকার। এখন মূলত মানুষের খাদ্য, চিকিৎসা, কল্যাণকেই প্রাধান্য দেয়া হচ্ছে। জনগণের অর্থ, জনগণের ট্যাক্সের টাকা দিয়েই তো সব কিছু চলে। জনগণের উন্নয়নের প্রচেষ্টা আমরা চালাচ্ছি’’ বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আরও বলেন, ‘‘প্রতিটি গ্রামের মানুষকে আমরা শহরের সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা দিয়ে যেতে চাই। তাতে শহরমুখী প্রবণতা কমে যাবে, গ্রামে অর্থনৈতিক কর্মচাঞ্চল্য বৃদ্ধি পাবে। আমাদের উন্নয়ন শুধু রাজধানীকেন্দ্রিক বা শহরকেন্দ্রিক হবে না। যে কারণে আমি ইতিমধ্যে ঘোষণা দিয়েছি- আমার গ্রাম, আমার শহর।‘’এ সময়ে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন। অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. তোফাজ্জল হোসেন মিয়া, রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার জি এস এম জাফরউল্লাহ, নরসিংদী জেলা প্রশাসক আবু নইম মোহাম্মদ মারুফ খান, বান্দরবানের ডিসি ইয়াসমিন পারভীন তিবরীজি বক্তব্য দেন উদ্বোধনী পর্বে।সরকারের নীতিনির্ধারক এবং জেলা প্রশাসকদের মধ্যে সরাসরি মতবিনিময়ের পাশাপাশি প্রয়োজনীয় দিক-নির্দেশনা দিতে প্রতি বছর ডিসি সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।এ বছর ডিসি সম্মেলনে ২৬টি অধিবেশন হবে। আর কার্য-অধিবেশন হবে ২০টি। সেগুলো হবে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে। প্রথম দিন মঙ্গলবার ৭টি, বুধবার ৮টি এবং শেষ দিন বৃহস্পতিবার ১০টি অধিবেশন থাকবে।মন্ত্রিপরিষদ সচিব মাহবুব হোসেন জানিয়েছেন, ডিসি ও বিভাগীয় কমিশনারদের কাছ থেকে এ বছর সম্মেলনে আলোচনার জন্য ২৪৫টি প্রস্তাব পাওয়া গেছে; এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ২৩টি প্রস্তাব পাওয়া গেছে স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ থেকে।এছাড়া ভূমি ব্যবস্থাপনা, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নয়ন, স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানসমূহের কার্যক্রম জোরদারকরণ, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা, ত্রাণ পুনর্বাসন কার্যক্রম; স্থানীয় পর্যায়ে কর্মসৃজন ও দারিদ্র বিমোচন কর্মসূচি বাস্তবায়ন, সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী কর্মসূচি বাস্তবায়ন, তথ্য...


Jan 22, 2023

জাতীয়

২৪ জানুয়ারি শুরু ডিসি সম্মেলন; আরও ক্ষমতা চান জেলা প্রশাসকরা

২৪ জানুয়ারি শুরু ডিসি সম্মেলন; আরও ক্ষমতা চান জেলা প্রশাসকরা

নিয়মিত কর্মসূচির অংশ হিসাবে নতুন প্রস্তাবনা নিয়ে শুরু হতে যাচ্ছে তিন দিনব্যাপী জেলা প্রশাসক (ডিসি) সম্মেলন। সম্মেলনে দেশের আট বিভাগের বিভাগীয় কমিশনারনাও অংশ নেবেন। গুরুত্বের দিক থেকে এবারের ডিসি সম্মেলন অন্যান্য বছরের বছরের তুলনায় ভিন্ন ও খুবই গুরুত্বপূর্ণ।মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সূত্রে জানা যায়,আগামী ২৪ জানুয়ারি সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের শাপলা হলে ডিসি সম্মেলন উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উদ্বোধনের পর করবী হলে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মুক্ত আলোচনায় অংশ নেবেন জেলা প্রশাসকরা।ওই দিনই প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের শাপলা হলে ডিসি সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেবেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এবং মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন। এ সময় সম্মেলনে সরকারপ্রধান থেকে শুরু করে মন্ত্রী ও সচিবেরা সরাসরি উপস্থিত থেকে ডিসিদের সঙ্গে কথা বলেন এবং সরকারের বিভিন্ন দিকনির্দেশনাসহ মাঠ পর্যায়ের দায়িত্বপালনের ক্ষেত্রে ডিসিরা সরাসরি প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরবেন।মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সূত্রে পাওয়া এবারের ডিসি সম্মেলনে প্রস্তাবনা মধ্যে রয়েছে ডিসি-ইউএনওকে সভাপতি করে জেলা ও উপজেলায় স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা কমিটি’ গঠন এবং সরকারি কর্মচারী আচরণ বিধিমালার মতো এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের জন্যও সুনির্দিষ্ট বিধিমালা করারসহ বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কর্মরত শিক্ষকদের সরাসরি রাজনীতি করার সুযোগ বন্ধ করা।এছাড়াও উপজেলা শিক্ষা কমিটিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের (ইউএনও) চেয়ারম্যান করাসহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগ সম্পর্কে অন্তত ২৪৪টি প্রস্তাবসহ মাঠপ্রশাসনে জেলা প্রশাসকরা হাসপাতাল ও উন্নয়ন প্রকল্প তদারকির দায়িত্ব, প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক নিয়োগে পোষ্য কোটা বাতিল এবং কারাবন্দিদের ভিডিও কলে আত্মীয়স্বজনদের কথা বলার সুযোগের প্রস্তাব দিয়েছেন।সরকারি রাজস্ব প্রশাসনের উন্নয়ন বরাদ্দে ডিসিদের আয়-ব্যয়ের ক্ষমতা চেয়েছেন। খাসজমি বন্দোবস্তের  কবুলিয়ত দলিল বাতিলের ক্ষমতাও চেয়েছেন জেলা প্রশাসকরা। ডিসির এল এ কন্টিনজেন্সি খাতের ব্যয়ের আর্থিক ক্ষমতা বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে। স্থানীয় সার্ভে অ্যান্ড সেটেলমেন্ট অফিসকে কাজের সুবিধার্থে ডিসি অফিসের সঙ্গে সার্বক্ষণিক সমন্বয় করার প্রস্তাব রয়েছে এবারের ডিসি সম্মেলনে।এছাড়া সরকারি প্রতিষ্ঠানের নামে অধিগ্রহণ বা বরাদ্দ করা জমি বন্দোবস্তের ক্ষেত্রে ডিসির অনুমতি নেওয়ার প্রস্তাব করা হয়েছে। জেলায়-উপজেলায় এডিসি ও এসিল্যান্ডের সরকারি বাড়ি ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ারও প্রস্তাব করা হয়েছে।সূত্রমতে,যদিও গত বছরের ডিসি সম্মেলনে নেওয়া ২৪২টি সিদ্ধান্তের মধ্যে ১৭৭টি বাস্তবায়ন হয়েছে। এখনও...


Jan 19, 2023

জাতীয়

রোহিঙ্গা শিবিরে বাড়ছে চাঁদাবাজি, অপহরণ ও মাদকের বিস্তার

রোহিঙ্গা শিবিরে বাড়ছে চাঁদাবাজি, অপহরণ ও মাদকের বিস্তার

 আশ্রিত রোহিঙ্গা ক্যাম্পে চাঁদাবাজি, অপহরণ ও আধিপত্য বিস্তার নিয়ে একের পর এক ভয়ঙ্কর সব অপরাধের ঘটনা বেড়েই চলেছে।রোহিঙ্গাদের নিয়ে অস্থিরতায় আর আতঙ্কে  রয়েছে স্থানীয়রা। রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন না হওয়া পর্যন্ত তাদের ভাসানচরসহ অন্য জেলায় বা অন্য কোনো দেশে স্থানান্তর করার দাবি জানিয়েছে কক্সবাজারের সুশীল মহল।উল্লেখ্য, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের এটিএম জাফর আলম সম্মেলন কক্ষে একাদশ জাতীয় সংসদের 'স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটি'র ২৬তম বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের বলেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অপহরণ ও সন্ত্রাসী কার্যক্রমের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে, রোহিঙ্গা ক্যাম্প কেন্দ্রিক অপহরণকারী ও সন্ত্রাসীদের হুঁশিয়ারিও প্রদান করেন ।স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে মন্ত্রী আরো বলেন, গোয়েন্দার মাধ্যমে যাচাই-বাছাই করে প্রকৃত মাদক কারবারিদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার হবে।কক্সবাজারে সুশীল সমাজের অন্যতম নেতা ডিএম রুস্তম জানান, এদেশে এসে রোহিঙ্গাদের একটি অংশ এখন বিপুল টাকার মালিক বনে গেছে, জড়িয়ে পরছে বিভিন্ন অপরাধে তাই আর কোনো কথা নয় তাদের ধ্রুত এই দেশ থেকে  সরানোর দাবি তুলছেন তিনি।কক্সবাজার সম্মিলিত নাগরিক আন্দোলন পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক মঈনুল হাসান চৌধুরী বলেন, উখিয়া-টেকনাফের ৩৩টি ক্যাম্পে আশ্রিত রোহিঙ্গা থেকে কিছু অংশ দেশের বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে রয়েছে। ফলে তারা গোটা দেশের জন্য যেমন হুমকিস্বরূপ তেমনি ক্যাম্পেও আধিপত্য বিস্তারে বিভক্তি সন্ত্রাসী কাযক্রম বাড়ায় সেখানে নিয়মিত হচ্ছে অপহরণ, মারামারি ও মাদক কারবার।২০১৮ সালের ২৩ জানুয়ারি এবং ২২ আগস্ট দুবার রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের দিনক্ষণ ঠিক করা হলেও একজনও ফেরত যায়নি বরং তারা নতুন শর্ত দিয়ে পরিস্থিতি আরও জটিল করে ফেলেছে। মিয়ানমারের মিথ্যা প্রতিশ্রুতিতে ও বিভিন্ন  শর্তের কারণে ভেস্তে গেছে প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া। এর আগে দুবার সরকারিভাবে প্রত্যাবাসনের সব আয়োজন হলেও কোনো রোহিঙ্গা ফিরে যায়নি নিজ দেশে। বরং জুড়ে দিয়েছিল নতুন শর্ত এতে অন্ধকারে তলিয়ে গেছে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন।প্রত্যাবাসনের পেছনে বড় বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো। মূলত আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো দেশীয় বিভিন্ন এনজিওকে ব্যবহার করে গোপনে প্রত্যাবাসন বিরোধী কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। এতে করে রোহিঙ্গাদের মাঝে ফিরে না যাওয়ার দাবিগুলো উঠে আসছে। আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো বলে চলেছে মিয়ানমারে ফিরে যাওয়ার পরিবেশ হয়নি রোহিঙ্গাদের।এদিকে, গাজীপুরের টঙ্গীতে অনুষ্ঠিতব্য ২য় বিশ্ব...


Jan 16, 2023

জাতীয়

পর্যটন নগরী কক্সবাজারের সঙ্গে রেল যোগাযোগের স্বপ্ন  চূড়ান্ত বাস্তবায়নের পথে

পর্যটন নগরী কক্সবাজারের সঙ্গে রেল যোগাযোগের স্বপ্ন চূড়ান্ত বাস্তবায়নের পথে

পরিকল্পনা মতো কাজ এগোলে এ বছরেই পর্যটন নগরীর কক্সবাজারের সঙ্গে রেল যোগাযোগ স্থাপনের স্বপ্ন বাস্তবে রূপ নিবে।নয়নাভিরাম প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য, বন্যপ্রাণীর অভয়ারণ্য, পাহাড়, জলাশয় আর ফসলি জমির মাঝ দিয়ে চলে গেছে দোহাজারি-কক্সবাজার রেলপথ, যেটা শেষ হয়েছে পৃথিবীর দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত-সমৃদ্ধ পর্যটন নগরী কক্সবাজারে। এ রেলপথ ভ্রমণকালে যে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য দৃষ্টিতে ধরা পড়বে তা ভ্রমণপিপাসুদের আনন্দিত ও মুগ্ধ করবে।প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অগ্রাধিকার প্রকল্প ১০২ কিলোমিটারের চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রেলপথের নির্মাণকাজ দ্রুতগতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। স্বপ্ন এখন চূড়ান্ত বাস্তবায়নের পথে। প্রকল্পের অগ্রগতি ৯০ শতাংশ। আগামী জুনে প্রকল্পের কাজ শেষ হলে এ পথে সাধারণ ট্রেনের সঙ্গে ‘পর্যটন বিশেষ ট্রেন’ চলবে।সাধারণ মানুষ স্বল্প খরচ এবং সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ও সেবায় কক্সবাজারে যেতে পারবেন। কক্সবাজারের রেল স্টেশন হবে আরও বেশি দৃষ্টিনন্দন। ঝিনুক আকৃতির অত্যাধুনিক এ স্টেশনে থাকবে যাবতীয় সুযোগ-সুবিধা। প্রকল্প সূত্রে জানা গেছে, ২৯ একর জমির ওপর গড়ে উঠা  স্টেশন ভবনের আয়তন এক লাখ ৮৭ হাজার বর্গফুট।কক্সবাজারের আইকনিক রেল স্টেশনে চলন্ত সিঁড়ির মাধ্যমে যাত্রীরা সেতু হয়ে ট্রেনে উঠবেন। আবার ট্রেন থেকে নেমে ভিন্ন পথে তারা বেরিয়ে যাবেন। এ জন্য গমন ও বহির্গমনের দুটি পথ তৈরি করা হচ্ছে। গাড়ি পার্কিংয়ের তিনটি বড় জায়গা থাকবে। পর্যটকরা লাগেজ স্টেশনে রেখেই সারা দিন সৈকত ও দর্শনীয় স্থান ঘুরে আবার ট্রেনে নিজ গন্তব্যে ফিরতে পারবেন। এছাড়া রেলভবনে মসজিদ, শিশুদের বিনোদনের জায়গা, প্যাসেঞ্জার লাউঞ্জ, শপিং মল, রেস্তোরাঁ, তারকামানের হোটেল, ব্যাংক ও কনফারেন্স হল থাকবে। ঝিনুক ফোয়ারা হয়ে ট্রেন আইকনিক স্টেশনে প্রবেশ করবে।কর্মকর্তারা জানান, এ রেলপথ পর্যটন খাত ছাড়াও কক্সবাজারের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে। বিশেষ করে এ অঞ্চলের মৎস্যসম্পদ, লবণ, রাবারের কাঁচামাল, বনজ ও কৃষিপণ্য পরিবহন ব্যবস্থা আগের চেয়ে সহজতর হবে। কমখরচে পণ্য পরিবহন করা যাবে। রেলে নির্জঞ্জাট ভ্রমণের সুযোগে পর্যটকের সংখ্যাও বাড়বে।সম্প্রতি কক্সবাজারে রেল প্রকল্পের কাজ পরিদর্শন শেষে রেলপথমন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন বলেন, চলতি বছরের জুন থেকে অক্টোবরের শেষ নাগাদ দোহাজারী-কক্সবাজার রেললাইন চালু হবে। তখন সারাদেশ থেকে মানুষ ট্রেনে চড়ে সরাসরি কক্সবাজারে যাবেন।রেলপথমন্ত্রী কক্সবাজারের আইকনিক স্টেশনের নির্মাণ কাজ দেখার পর উপস্থিত সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে...


Jan 15, 2023

জাতীয়,স্বাস্থ্য

স্বল্প আয়ের ও প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জন্য দেশেই শুরু হল  লিভার প্রতিস্থাপন

স্বল্প আয়ের ও প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জন্য দেশেই শুরু হল লিভার প্রতিস্থাপন

দেশের স্বল্প আয়ের ও প্রান্তিক জনগোষ্ঠী যাতে সফলভাবে লিভার প্রতিস্থাপন করার চিকিৎসা সুবিধা পেতে পারে এ জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দিকনির্দেশনায় লিভার প্রতিস্থাপন কার্যক্রম শুরু হয়েছে।বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের হেপাটোবিলিয়ারি, প্যানক্রিয়েটিক ও লিভার ট্রান্সপ্ল্যান্ট সার্জারি বিভাগের তত্ত্বাবধানে রোববার (১৫ জানুয়ারী) মো. মন্তেজার রহমান নামের এক রোগীর ওপর লিভার প্রতিস্থাপন অস্ত্রোপচার সম্পাদিত হয়।  প্রায় ১২ ঘণ্টাব্যাপী অস্ত্রোপচারে সহযোগিতা করেন ভারতের এশিয়ান ইনস্টিটিউট অব গ্যাস্ট্রোএন্টারোলজির লিভার ট্রান্সপ্ল্যান্ট সার্জন ও অ্যানেস্থেসিয়া টিম।বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) সফলভাবে লিভার প্রতিস্থাপন করা  হয়েছে বলে জানিয়েছে বিএসএমএমইউ কর্তৃপক্ষ।অস্ত্রপচারের পর ওই দিন এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান বিএসএমএমইউ উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ৫৩ বছর বয়সী মন্তেজারকে লিভার দান করেন তার বোন শামীমা আক্তার (৪৩)। তার দেহ থেকে সুস্থ লিভারের ৬০ শতাংশ কেটে নেওয়া হয়। মন্তেজারের সিরোটিক লিভারের পুরোটাই কেটে বের করে ফেলা হয় এবং শামীমার দেহ থেকে কেটে নেওয়া সুস্থ লিভারের ৬০ শতাংশ জোড়া দেওয়া হয়। লিভারদাতা শামীমার লিভারটি ধীরে ধীরে রিজেনারেট করবে। বর্তমানে রোগী সুস্থ আছেন।গত ১ জানুয়ারি বগুড়ার লিভারের রোগী মন্তেজারকে বগুড়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তিনি নন-বি, নন-সিজনিত ‘এন্ড স্টেজ লিভার ডিজিজে’ আক্রান্ত ছিলেন।অস্ত্রোপচারে লিভারগ্রহীতার পক্ষে ছিলেন অধ্যাপক মো. মোহছেন চৌধুরী, অধ্যাপক ডা. বিধান চন্দ্র দাস, অধ্যাপক, ডা. আবদুল্লাহ মো. আবু আইয়ুব আনসারী, সহকারী অধ্যাপক ও ডা. সারওয়ার আহমেদ সোবহান। লিভারদাতার পক্ষে ছিলেন অধ্যাপক মো. জুলফিকার রহমান খান, ডা. মো. নূর ই এলাহী, ডা. মোহাম্মদ সাইফ উদ্দীন ও ডা. আশীষ সাহা।ডা. শারফুদ্দিন আহমেদ বলেন, দেশের স্বল্প আয়ের ও প্রান্তিক জনগোষ্ঠী যাতে এই চিকিৎসা সুবিধা পেতে পারে এ জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দিকনির্দেশনায় লিভার প্রতিস্থাপন কার্যক্রমের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তিনি জানান, লিভার ট্রান্সপ্ল্যান্টেশন অপারেশনটি ছিল একটি লিভিং ডোনার লিভার ট্রান্সপ্ল্যান্টেশন। এর অর্থ হলো রোগীর আত্মীয় সম্পর্কিত কোনো দাতা থেকে লিভারের একটি অংশ কেটে রোগীর দেহে প্রতিস্থাপন করা হয় (রোগীর সিরোটিক লিভারের পুরোটিই কেটে ফেলা হয়)।উপাচার্য বলেন, বাংলাদেশে প্রতিবছর ৮০ লাখ মানুষ লিভার রোগে আক্রান্ত হয়। এর মধ্যে মারা...


Jan 12, 2023

জাতীয়

ছাত্রলীগের ইতিহাস, বাঙালির ইতিহাস’ শীর্ষক থিয়েট্রিকাল পরিবেশনা

ছাত্রলীগের ইতিহাস, বাঙালির ইতিহাস’ শীর্ষক থিয়েট্রিকাল পরিবেশনা

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের গৌরব, ঐতিহ্য, সংগ্রাম ও সাফল্যে শীর্ষক ধারাবাহিক  সাংস্কৃতিক আন্দলন ‘ছাত্রলীগের ইতিহাস, বাঙালির ইতিহাস’ শীর্ষক থিয়েট্রিকাল পরিবেশনা শুরু করতে যাচ্ছে।ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক তানভীর হাসান সৈকত বলেন, ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পুনর্মিলনী ‘বাংলাদেশ ছাত্রলীগ: গৌরব, ঐতিহ্য, সংগ্রাম ও সাফল্যের ৭৫ বছর’ শীর্ষক স্মারক গ্রন্থ প্রকাশ ‘স্মার্ট বাংলাদেশ আইডিয়া কনটেস্ট’ সহ কনসার্ট ফর স্মার্ট বাংলাদেশ আয়োজনের আংশ হিসাবে আগামী ১৩ই রোজ শুক্রবার সন্ধ্যায়  টি এস সি চত্বরে ছাত্রলীগের সাংস্কৃতিক আন্দলন ‘ছাত্রলীগের ইতিহাস, বাঙালির ইতিহাস’ শীর্ষক থিয়েট্রিকাল পরিবেশনা হবে বলে অবহিত করেন ।ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মাঝারুল কবির শয়ন  ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক তানভীর হাসান সৈকত  বাংলাদেশ পোস্টকে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান, ‘বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ধারাবাহিক  সাংস্কৃতিক আন্দলনকে বেগবান করতে  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ‘ছাত্রলীগের ইতিহাস, বাঙ ালির ইতিহাস’ শীর্ষক থিয়েট্রিকাল পরিবেশনা নির্মাণ করেছে’ , প্রারম্ভিকভাবে টি এস সি চত্বরে এবং পরবর্তীতে ধারাবাহিক ভাবে প্রতিটি হলে সাধারন শিক্ষাথীদের জন্য পরিবেশন করা হবে  বলে জানান ।ধ্বনি ও দমনীর ভেতরে আমাদের ভাষার উপমা,বাংলাদেশের মানুষের প্রা্নস্পন্দন, তাদের জীবন ও ভাগ্য বদলের কারিগর বঙ্গবন্ধুর কন্যা জননেত্রী দেশ রত্ন শেখ হাসিনা ২০৪১ সালের উন্নত বাংলাদেশ গড়ার জন্য ‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ গড়ার যে প্রস্তাবনা দিয়েছেন, দেশের সকলস্তরের ছাত্র সমাজ  সোৎসাহে তা গ্রহন করেছেন।দেশরত্ন শেখ হাসিনার উন্নয়ন অগ্রযাত্রা নিয়ে ‘শর্ট ফিল্ম প্রতিযোগিতা’ আয়োজন। উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের নিয়ে দেশব্যাপী ‘বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে স্মার্ট বাংলাদেশের প্রাসঙ্গিকতা’ শীর্ষক প্রতিযোগিতা ও জাতীয়ভাবে ‘স্মার্ট ইয়ুথ ক্যাম্প’ ও সকল সাংগঠনিক ইউনিটের দলীয় কার্যালয়ে লাইব্রেরি প্রতিষ্ঠা করা সহ বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহন করা হয়েছে ।সাধারণ সম্পাদক তানভীর হাসান সৈকত আরও বলেন, ঢাকার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ‘সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদের মদদদাতা, দুর্নীতিবাজদের পৃষ্ঠপোষক, গণতন্ত্র ও মানবাধিকারের হন্তারক, অশুভ ও অন্ধকারের শক্তি বিএনপি-জামায়াতের দেশবিরোধী ষড়যন্ত্র, অগ্নিসন্ত্রাসের প্রচেষ্টা ও সংবিধানবিরোধী অপতৎপরতার বিরুদ্ধে’ এই কর্মসূচি পালন অব্যাহত থাকবে বলেও জানায় ।...


Jan 11, 2023

জাতীয়

বিএনপির গণঅবস্থান কর্মসূচির পাল্টায় শাহবাগ চত্বরে ‘সতর্ক পাহারায়’ ছাত্রলীগ

বিএনপির গণঅবস্থান কর্মসূচির পাল্টায় শাহবাগ চত্বরে ‘সতর্ক পাহারায়’ ছাত্রলীগ

বিএনপির গণঅবস্থান কর্মসূচির পাল্টায় একই সময়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন স্থানে অবস্থান নিয়ে ‘সতর্ক পাহারায়’ থাকার কথা জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ।বেলা ১১টা থেকে শাহবাগ চত্বরে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছে  কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, ইডেন কলেজসহ ঢাকার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা । ‘সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদের মদদদাতা, দুর্নীতিবাজদের পৃষ্ঠপোষক, গণতন্ত্র ও মানবাধিকারের হন্তারক, অশুভ ও অন্ধকারের শক্তি বিএনপি-জামায়াতের দেশবিরোধী ষড়যন্ত্র, অগ্নিসন্ত্রাসের প্রচেষ্টা ও সংবিধানবিরোধী অপতৎপরতার বিরুদ্ধে’ এই কর্মসূচি পালন করছে বলে জানায় কেন্দ্রীয় নেত্রীবৃন্দ ।কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, ইডেন কলেজসহ ঢাকার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা মিছিল নিয়ে এসে শাহবাগের এ কর্মসূচিতে যোগ দিচ্ছেন।ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ ওয়ালী আসিফ ইনান অবস্থান কর্মসূচিতে বলেন, “বিএনপি রাজনৈতিক কর্মসূচির নামে সাধারণ মানুষের জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলছে, মানুষের জীবন-মানকে ক্ষতিগ্রস্ত করছে, মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাপনকে ব্যাহত করছে।'বিএনপি-জামায়াত অপশক্তি আবারও দেশে পেট্রোল বোমা, অগ্নিসন্ত্রাস ও নৈরাজ্য সৃষ্টির পাঁয়তারা করছে। আজকে ছাত্রসমাজ ঐক্যবদ্ধভাবে এসকল সন্ত্রাসীদের অপতৎপরতার বিরুদ্ধে জেগে উঠেছে। তরুণ শিক্ষার্থীরা আজ ঐক্যবদ্ধ যে, কোনোভাবেই আর অগ্নিসন্ত্রাস চলতে দেওয়া যাবে না।"ছাত্রলীগ বলছে, এটি 'সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, দুর্নীতির প্রতিশব্দ বিএনপি-জামায়াতের অপতৎপরতা বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ ছাত্রসমাজের অবস্থান কর্মসূচি'। 'হৈ হৈ রৈ রৈ ছাত্রদল গেলি কই', 'শিবিরের চামড়া তুলে নেব আমরা', 'জামায়াত-শিবির রাজাকার এই মুহূর্তে বাংলা ছাড়', বিএনপি-জামায়াতের কালো হাত ভেঙে দাও, গুঁড়িয়ে দাও', 'এই লড়াইয়ে জিতবে কারা, বঙ্গবন্ধুর সৈনিকেরা', ইত্যাদি স্লোগান দিচ্ছেন নেতাকর্মীরামহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে কদিন ধরেই বলা হচ্ছে, বিএনপি ‘গণঅবস্থানের নামে সহিংসতা প্রতিরোধে’ এই ‘সতর্ক পাহারা ও সমাবেশ’। মহানগর আওয়ামী লীগের  নেতারা সমাবেশে যে কোনো মূল্যে বিএনপি 'সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ কে ‘ঠেকাতে চান’ বলে তারা বক্তব্য দিচ্ছেন।যার পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা মিছিল নিয়ে শাহবাগ চত্বরে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছে।...


Jan 10, 2023

জাতীয়

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর  স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের শ্রদ্ধা নিবেদন

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের শ্রদ্ধা নিবেদন

১৯৭১ সালের ১০ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের মধ্য দিয়ে জাতি বিজয়ের পূর্ণ স্বাদ গ্রহণ করে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস  উপল্লক্ষ্যে তার প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) সকালে ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক শেখ ওয়ালী আসিফ ইনানের নেতৃত্বে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মাজহারুল কবির শায়ান, সাধারণ সম্পাদক তানভীর হাসান সৈকত, ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সভাপতি রিয়াজ মাহমুদ, সাধারণ সম্পাদক সাগর আহমেদ, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রলীগের সভাপতি রাজিবুল ইসলাম বাপ্পী, সাধারণ সম্পাদক সজল কুন্ডুসহ কেন্দ্রীয় নেতাকর্মীরা ধানমন্ডিতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করেন ।প্রসঙ্গত, ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর চূড়ান্ত বিজয় অর্জিত হলেও পাকিস্তানের বন্দীদশা থেকে মুক্তি পেয়ে ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সদ্য স্বাধীন বাংলাদেশের মাটিতে প্রত্যাবর্তন করেন।যুদ্ধ চলাকালিন দীর্ঘ ৯ মাস কারাভোগের পর ৮ জানুয়ারি পাকিস্তানের মিয়ানওয়ালি কারাগার থেকে মুক্তি লাভ করেন। পরে বঙ্গবন্ধু পাকিস্তান থেকে লন্ডন ও দিল্লী হয়ে ঢাকা ফেরেন বঙ্গবন্ধু। জাতির পিতা পাকিস্তান থেকে ছাড়া পান ১৯৭২ সালের ৮ জানুয়ারি ভোরে। এদিন বঙ্গবন্ধু সকাল সাড়ে ৬টায় লন্ডনের হিথরো বিমানবন্দরে পৌঁছে, ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী এডওয়ার্ড হিথ, তাজউদ্দিন আহমদ ও ভারতের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীসহ অনেকের সঙ্গে সাক্ষাতে কথা বলেন। পরে ৯ জানুয়ারি ব্রিটেন বিমান বাহিনীর একটি বিশেষ বিমানে করে পরের দিন ১০ জানুয়ারি সকালেই তিনি দিল্লীতে নামেন । সেখানে ভারতের রাষ্ট্রপতি ভিভি গিরি, প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী, সমগ্র মন্ত্রিসভা, শীর্ষস্থানীয় নেতৃবৃন্দ, তিন বাহিনীর প্রধান এবং অন্যান্য অতিথি ও সেদেশের জনগণের কাছ থেকে উষ্ণ সংবর্ধনা লাভ করেন এবং সদ্য স্বাধীন বাংলাদেশের জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমান, ভারতের নেতৃবৃন্দ এবং জনগণের কাছে তাদের অকৃপণ সাহায্যের জন্য আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানান।বেলা ১টা ৪১ মিনিটে তিনি ঢাকা এসে পৌঁছালে অপেক্ষমান বাঙালি জাতি বঙ্গবন্ধুকে প্রাণঢালা সংবর্ধনা জানানোর জন্য প্রাণবন্ত আনন্দে আত্মহারা লাখ লাখ মানুষ ঢাকা বিমান বন্দর থেকে রেসকোর্স ময়দান পর্যন্ত তাঁকে স্বতঃস্ফূর্ত সংবর্ধনা জানান।রেসকোর্স ময়দানে প্রায় ১০ লাখ লোকের উপস্থিতিতে বিকাল পাঁচটায়  তিনি ভাষণ দেন। আনন্দ-বেদনার অশ্রুধারা দু-চোখে স্বদেশের মাটি ছুঁয়ে...


Jan 09, 2023

জাতীয়

 ব্যাংক ও আর্থিকখাত নিয়ে গুজব ছড়াচ্ছে জামায়াত-শিবির – ডিবি প্রধান

ব্যাংক ও আর্থিকখাত নিয়ে গুজব ছড়াচ্ছে জামায়াত-শিবির – ডিবি প্রধান

দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করা, দেশের অর্থনীতিকে বিপর্যস্ত করা এবং সরকারকে বেকায়দায় ফেলতে জামায়াত-শিবিরসহ দেশবিরোধী চক্র দেশের ব্যাংক ও আর্থিকখাত নিয়ে গুজব  ছড়াচ্ছে।অপপ্রচার চালিয়ে দেশের অর্থনীতিকে বিপর্যস্ত করে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করার  লক্ষে যে সকল দেশবিরোধী চক্র কাজ করে চলেছে তাদের অনেকেই ডিবি পুলিশ গ্রেপ্তার করতেছে।সোমবার (৯ জানুয়ারি) ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) প্রধান হারুন অর রশীদ মিডিয়া সেন্টারে সাংবাদিকদের বলেন, যারা না জেনে, ব্যাংকে না গিয়ে অপপ্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন, তাদের আমরা গ্রেপ্তার করেছি, ‘তারা সবাই  জামায়াত-শিবিরের সমর্থক বলে তারা স্বীকার করেছেন।‘ডিবির এ কর্মকর্তা বলেন, ‘জামায়াত-শিবিরের সমর্থক বিশ্বের বিভিন্ন দেশে রয়েছেন, তারা সেখান থেকে স্যোশাল মিডিয়ায় বিভিন্ন কথা বলে চলেছেন। আবার বাংলাদেশেও তাদের কিছু লোক রয়েছে, তাদের নাম আমরা পেয়েছি, রিমান্ডে এনে তথ্য আদায়ের কাজ চলমান আপনাদের পরবর্তীতে জানাব।তিনি আর বলেন, তাদের সঙ্গে আরো কারা কারা আছেন, কারা বিদেশ থেকে এ ধরনের নীতিবাচক প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন, সেটার তথ্য আমরা পেয়েছি। পরবর্তীতে সব কিছু তদন্তে বের হয়ে আসবে।...


Jan 08, 2023

জাতীয়

পুলিশের যৌক্তিক দাবি বাস্তবায়নের আশ্বাস স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর

পুলিশের যৌক্তিক দাবি বাস্তবায়নের আশ্বাস স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর

আইজিপির র‍্যাংক ব্যাচ ফোর স্টার করা ও সিনিয়র সচিব পদমর্যাদা সহ পুলিশ  বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা পুলিশ সপ্তাহের পঞ্চম দিনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের কাছে নিজেদের বিভিন্ন দাবি  তুলে ধরেন ।‌   পুলিশ অধিদপ্তরের বদলে পুলিশ হেডকোয়ার্টার লেখা, পুলিশ হাসপাতালকে মেডিক্যাল কলেজ করা, বঙ্গবন্ধু ইউনিভার্সিটি অব পুলিশ অ্যান্ড ক্রিমিনাল জাস্টিস নামে পুলিশের জন্য একটা বিশেষায়িত বিশ্ববিদ্যালয় করা, চাকরিরত অবস্থায় পুলিশ সদস্য মারা গেলে ক্ষতিপূরণ পাওয়া সহ বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরেন পুলিশ  বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ।শনিবার (৭ জানুয়ারি) রাজারবাগ পুলিশ লাইন টেলিকম অডিটরিয়ামে রাত আটটায় সভা শুরু করে সাড়ে ১০টার দিকে শেষ হয়া মতবিনিময় সভায় আসাদুজ্জামান খান বলেন, চাকরিরত অবস্থায় পুলিশ সদস্য মারা গেলে ক্ষতিপূরণ পাওয়ার দাবি যৌক্তিক। সিনিয়র সচিব এটার ব্যবস্থা নেবেন।তিনি আরও বলেন, সাইবার জগতটা আমাদের জন্য নতুন জগৎ। অপরাধীরা এখানে অত্যন্ত সক্রিয়। এ জায়গাটায় আমাদের অনেক কিছু করতে হবে। আমাদের সাইবার ইউনিট আরও শক্তিশালী করতে হবে।একটি স্বতন্ত্র বিশ্ববিদ্যালয়ের দাবি এসেছে। যত বেশি পুলিশকে প্রশিক্ষণ দিতে পারবো তত বেশি দক্ষ পুলিশ বাহিনী তৈরি হবে, এটি একটি যৌক্তিক দাবি।কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালকে মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রূপান্তর করার দাবি এসেছে। আপনাদের হাসপাতালটা একটা ভালো মানের হাসপাতালে রূপান্তরিত হয়েছে। এটাকে আপনারা কলেজের রূপান্তরিত করতে চান। আপনারা বিষয়টা আর একটু পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে বলবেন। কারণ আমাদের যে পরিমাণ মেডিক্যাল কলেজ আছে, কোনও কোনও মেডিক্যাল কলেজে তো শিক্ষকই নাই। বিষয়টা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে আমাদের সচিব দেখবেন। প্রত্যেক বিভাগে একটা করে আধুনিক হাসপাতাল হবে এটা আমি যৌক্তিক দাবি মনে করি।পঞ্চম গ্রেডের কর্মকর্তাদের বদলি ও পদোন্নতি পুলিশ হেডকোয়ার্টার কর্তৃক সম্পাদন করার কথা বলা হয়েছে। এটাও আমাদের সচিব মহোদয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখবেন।তাছাড়া মন্ত্রণালয়ে পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স নামটি ব্যবহার করার জন্য বলা যেতেই পারে। এখানে কোনও সমস্যা নেই। পুলিশে কর্মরত সিভিল স্টাফদের অবসরকালীন রেশন সুবিধা, এটা অন্য বাহিনী পায় কিনা আমরা চেক করে দেখবো।মন্ত্রী আরও বলেন, আইজিপির সিনিয়র সচিব পদমর্যাদা বিষয়ে। যেখানে আমরা বলছি সিনিয়র সচিব, সেখানে তাকে সিনিয়র সচিব ঘোষণা দিতে বিলম্ব কেন ,আমার জানা নেই।পুলিশের যানবাহনের প্রয়োজন রয়েছে। যানবাহনের এবারও আমাদের বাজেট...


Jan 05, 2023

জাতীয়

স্থাপত্যশৈলী হিসেবে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেতে যাচ্ছে পদ্মা সেতু

স্থাপত্যশৈলী হিসেবে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেতে যাচ্ছে পদ্মা সেতু

বিশ্বের অন্যতম কঠিন স্থাপত্যশৈলী হিসেবে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেতে যাচ্ছে বাংলাদেশের নবনির্মিত পদ্মা সেতু। বিশ্বের অন্যতম কঠিন স্থাপত্যশৈলী হিসেবে পদ্মা সেতুকে স্বীকৃতি দেবে আমেরিকান সোসাইটি অব সিভিল ইঞ্জিনিয়ার্স (এএসসিই)।বিশ্বের খ্যাতনামা প্রকৌশল সংগঠন আমেরিকান সোসাইটি অব সিভিল ইঞ্জিনিয়ার্সের (এএসসিই) এনভায়রনমেন্ট অ্যান্ড ওয়াটার রিসোর্সেস ইনস্টিটিউট (ইডব্লিউআরআই) এবং বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) বাংলাদেশ সরকারের পানি ও বন্যা ব্যবস্থাপনা ইনস্টিটিউট যৌথভাবে এই সম্মেলনের আয়োজন করেছে।সম্মেলনের আয়োজক ও আন্তর্জাতিক পানি বিশেষজ্ঞ ড. সুফিয়ান খন্দকার জানান, ঢাকার প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে অনুষ্ঠিতব্য এই সম্মেলনে এএসসিইর সভাপতি মারিয়া  লেহমান সহ বিশ্বের ১৩‌টি দেশের পানি বিজ্ঞানী, বিশেষজ্ঞ ও পরিবেশবিদদের ঢাকায় পূর্ণাঙ্গ অধিবেশনে যোগ দি‌তে বাংলা‌দেশে এ‌সে‌ছেন।ইন্টারন্যাশনাল পারস্পেকটিভ অন ওয়াটার রিসোর্সেস অ্যান্ড দ্য এনভায়রনমেন্টের (আইপিডব্লিউই) একাদশতম সম্মেলনের ৪-৬ জানুয়ারি ঢাকার সঙ্গে একযোগে যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়া রাজ্যের রেস্টনে আইপিডব্লিউই-২০২৩ অনুষ্ঠিত হচ্ছে।সম্মেলনের আয়োজক ও আন্তর্জাতিক পানি বিশেষজ্ঞ ড. সুফিয়ান খন্দকার আর জানান, পদ্মা সেতুর জন্য এ স্বীকৃতি দিতে সম্মত হয়েছে এএসসিইর পরিচালনা পর্ষদ। এএসসিইর সভাপতি মারিয়া লেহমান এর উপস্থিতিতে এ স্বীকৃতি দেওয়া হবে। বুয়েটের কাউন্সিল ভবনে আইপিডব্লিউই-২০২৩ এর এক সংবাদ স‌ম্মেল‌নে এ তথ‌্য জানা‌নো হ‌য়ে‌ছে।ঢাকায় অনুষ্ঠিতব্য তিন দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক পানি সম্পদ ও পরিবেশ সম্মেলনে (আইপিডব্লিউই-২০২৩) পদ্মা সেতুকে এ স্বীকৃতি দেবে বিশ্বের খ্যাতনামা প্রকৌশল সংগঠন আমেরিকান সোসাইটি অব সিভিল ইঞ্জিনিয়ার্স (এএসসিই)।ড. সুফিয়ান খন্দকার জানান, পদ্মা সেতু নির্মাণে বহু বাধা এসেছে। এটা ছিল পদ্মা নদীর পানির স্রোতের বাধা। এজন্য নদী শাসন করতে নির্মাতা প্রতিষ্ঠানকে হিমশিম খেতে হয়েছে। বিশ্বের আর কোনো সেতু এমন বাধার সম্মুখীন হয়নি। পদ্মা সেতু নির্মাণে এ পর্যন্ত যত প্রকৌশল প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে, তা বিশ্বের কোনো সেতুতে হয়নি।এসব কারণে বিশ্বের অন্যতম কঠিন স্থাপত্যশৈলী হিসেবে পদ্মা সেতুকে স্বীকৃতি দেবে আমেরিকান সোসাইটি অব সিভিল ইঞ্জিনিয়ার্স (এএসসিই)।ড. সুফিয়ান খন্দকার বলেন, পদ্মা সেতুর এই স্বীকৃতি বাংলাদেশকে বিশ্বের কাছে নতুন করে পরিচিত করে তুলবে। তিনি বলেন, এই সম্মেলনে আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ ও অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশের পানি ও বন্যা ব্যবস্থাপনা সমৃদ্ধ হবে। এছাড়াও বাংলাদেশ নানাভাবে উপকৃত হবে।২০০৬ সাল থেকে আইপিডব্লিউই কনফারেন্স সিরিজ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ওই বছর প্রথম...


Jan 04, 2023

জাতীয়

ভাষা ও স্বাধীনতার পতাকাবাহী সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কর্মসূচি শুরু

ভাষা ও স্বাধীনতার পতাকাবাহী সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কর্মসূচি শুরু

ঐতিহ্যবাহী ছাত্রসংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে  সংগঠনটির নেতাকর্মীরা রাজধানীর ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে  শ্রদ্ধা জানিয়ে বছরব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি শুরু করেন।  বুধবার (৪ জানুয়ারি) সকাল সোয়া ৮টার দিকে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির নতুন সভাপতি সাদ্দাম হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক শেখ ওয়ালী আসিফ ইনান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মাজহারুল কবীর শয়ন, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক তানভীর হাসান সৈকত, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রাজিবুল ইসলাম বাপ্পী ও সাধারণ সম্পাদক সজল কুন্ডুসহ বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা শ্রদ্ধা জানান ।এ সময় স্লোগানে স্লোগানে মুখর হয়ে ওঠে পুরো এলাকা। গৌরব, ঐতিহ্য, সংগ্রাম ও সাফল্যের দীর্ঘ এ পথচলায় মহান মুক্তিযুদ্ধসহ দেশের সব গণতান্ত্রিক আন্দোলনে নেতৃত্ব দিয়েছে বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া এ সংগঠনটি।১৯৪৮ সালের আজকের এদিনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দেশের বৃহৎ এ ছাত্র সংগঠনটি প্রতিষ্ঠা করেন। একই বছর রাষ্ট্রভাষা বাংলার দাবিতে আন্দোলনে নামেন সংগঠনের নেতাকর্মীরা। ভাষা ও স্বাধীনতার পতাকাবাহী সংগঠন রূপেও পরিচিতি রয়েছে সংগঠনটির।চুয়ান্নোর নির্বাচন, বাষট্টির শিক্ষা আন্দোলন, ছেষট্টির বাঙালি মুক্তির সনদ ছয় দফা, ৬৯এর গণ-অভ্যুত্থান, ৭০এর নির্বাচন, ৭১এর মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা অর্জন, স্বাধীনত্তোর সামরিক শাসন বিরোধী আন্দোলন, ৯০ ও ৯৬এর গণঅভ্যুত্থানসহ সকল আন্দোলন সংগ্রামের নেতৃত্বদানকারী সংগঠন হিসেবে ছাত্রলীগের রয়েছে ঐতিহাসিক ভূমিকা । এই ছাত্রসংগঠনের হাত ধরেই বাঙালির মুক্তি সংগ্রামের শুরু আর এই কারনেই ছাত্রলীগকে বলা হয় আওয়ামী লীগের মাতৃ সংগঠন।অন্যান্য বছর প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর দিনই শোভাযাত্রা বের করে ছাত্রলীগ। তবে এবার ৬ জানুয়ারি শুক্রবার দুপুর আড়াইটায় হবে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর শোভাযাত্রা।সাদ্দাম হোসেন বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক পরিবেশ সমুন্নত রাখা, ঢাকা শহরের জ্যাম, শিক্ষার্থীদের ক্লাস-পরীক্ষা এবং গণজীবনের স্বাভাবিক অগ্রযাত্রাকে অব্যাহত রাখতে আমরা আমাদের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর শোভাযাত্রা শুক্রবার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এছাড়া ৫-৮ জানুয়ারি রক্তের গ্রুপ নির্ণয়, স্বেচ্ছায় রক্তদান ও সংগৃহীত রক্ত বিতরণ আর শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ সহ পূর্ব নিধারিত সময়ে করার উদ্যোগও নেয়া হয়েছে।ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সাদ্দাম হোসেন আর বলেন, ছাত্রসমাজ ও তরুণ প্রজন্মকে ঐক্যবদ্ধ করে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনার পরিকল্পিত ‘স্মার্ট বাংলাদেশের’ নেতৃত্ব দেবে ছাত্রলীগ, ৭৫তম বর্ষপূর্তিতে এটিই আমাদের সংকল্প।...


Jan 03, 2023

জাতীয়

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বছরব্যাপী কর্মসূচির আয়োজন

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বছরব্যাপী কর্মসূচির আয়োজন

ঐতিহ্যবাহী ছাত্রসংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে  বছরব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচির আয়োজন করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।৪ঠা জানুয়ারি থেকে ৮ ই  জানুয়ারি পর্যন্ত মূল অনুষ্ঠানগুলো পালিত হবে । সুবিধা মতো সময়ে অন্য  সকল কর্মসূচিগুলো পালন করা হবে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে এক সংবাদ সম্মেলনে মঙ্গলবার বেলা ১২টার দিকে কর্মসূচির ঘোষণা করেন ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেন।ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক তানভীর হাসান সৈকত বাংলাদেশ পোস্টকে ছাত্রলীগের সভাপতির প্রকাশিত কর্মসূচির অবহিত করে বলেন, ৪ জানুয়ারি কর্মসূচিতে থাকছে, সকাল ৬টায় সংগঠনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন, সকাল সাড়ে ৮টায় ধানমন্ডিস্থ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন, সকাল ৯টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্জন হলে কেক কেটে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন ও বিকাল ৩টায় শীতার্তদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ ।৬ জানুয়ারি দুপুর ২.৩০ মিনিটে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী শোভাযাত্রা এছাড়া ৫-৮ জানুয়ারি প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয়, স্বেচ্ছায় রক্তদান ও সংগৃহীত রক্ত বিতরণ ও শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ।প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে দেশের ওয়ার্ড পর্যায়  অনাবাদি জমিতে শাকসবজি-ফল চাষ, মাছ ও গৃহপালিত পশুপালন ইত্যাদি উদ্যোগ গ্রহণ ও প্রগতিশীল ছাত্র সংগঠনের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে ‘ঐক্যবদ্ধ ছাত্রসমাজ’ শীর্ষক মতবিনিময় কর্মসূচি সুবিধাজনক সময়ে পালিন করা।এছাড়া সুবিধাজনক সময়ে পালিত করা হবে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পুনর্মিলনী ‘বাংলাদেশ ছাত্রলীগ: গৌরব, ঐতিহ্য, সংগ্রাম ও সাফল্যের ৭৫ বছর’ শীর্ষক স্মারক গ্রন্থ প্রকাশ ‘স্মার্ট বাংলাদেশ আইডিয়া কনটেস্ট’ সহ কনসার্ট ফর স্মার্ট বাংলাদেশ আয়োজন।আর থাকছে, দেশরত্ন শেখ হাসিনার উন্নয়ন অগ্রযাত্রা নিয়ে ‘শর্ট ফিল্ম প্রতিযোগিতা’ আয়োজন। উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের নিয়ে দেশব্যাপী ‘বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে স্মার্ট বাংলাদেশের প্রাসঙ্গিকতা’ শীর্ষক প্রতিযোগিতা ও জাতীয়ভাবে ‘স্মার্ট ইয়ুথ ক্যাম্প’ ও সকল সাংগঠনিক ইউনিটের দলীয় কার্যালয়ে লাইব্রেরি প্রতিষ্ঠা করা ।বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে ‘ডেভেলপমেন্ট কুইজ’ , নারী শিক্ষার্থীদের নিয়ে ‘নারীর ক্ষমতায়ন ও শেখ হাসিনা’ শীর্ষক বক্তব্য প্রতিযোগিতা ,‘সজিব ওয়াজেদ জয় প্রোগ্রামিং কনটেস্ট’ আয়োজন’ সহস্মার্ট বাংলাদেশ' ও 'স্মার্ট ক্যাম্পাস' এর উপর আন্তর্জাতিক একাডেমিক কনফারেন্স ‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ ও  অলিম্পিয়াড‘স্মার্ট বাংলাদেশ: আওয়ার কান্ট্রি, আওয়ার ড্রিম’ শীর্ষক পোস্টার প্রেজেন্টেশনসহ দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরস্কারপ্রাপ্ত মেধাবী শিক্ষার্থীদের...


Jan 02, 2023

জাতীয়

ডিবি পুলিশ কি না, তা যাচাই করুন, প্রয়োজনে সহযোগিতা নিন- ডিবি প্রধান

ডিবি পুলিশ কি না, তা যাচাই করুন, প্রয়োজনে সহযোগিতা নিন- ডিবি প্রধান

ডিবি পুলিশ বললেই যাচাই-বাছাই ছাড়া গাড়িতে উঠেবেন না। এক্ষেত্রে ভুয়া ডিবি পুলিশ কি না, তা যাচাই করবেন। অপ্রীতিকর সমস্যা সমাধানে প্রয়োজনে আশপাশের মানুষের সহযোগিতা নেবেন।ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) প্রধান হারুন অর রশিদ বলেন, ‘অপ্রীতিকর সমস্যার  অনেকাংশেই সমাধান করতে হলে যাচাই-বাছাই  করুন, প্রয়োজনে পুলিশের সহযোগিতা নিন’।সোমবার (২ ডিসেম্বর) দুপুরে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া সেন্টারের সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।হারুন অর রশিদ বলেন, ‘অনেকেই আমাদের ডিবির নাম ব্যবহার করে তুলে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ করেছেন। অনেককে তুলে নিয়ে যাওয়ার ঘটনাও ঘটছে। তারা ডিবির কথা বলে তুলে নিয়ে যায়। কেউ ডিবি পুলিশ বললেই গাড়িতে উঠে যাবেন না। আপনারা এক্ষেত্রে ভুয়া ডিবি পুলিশ কি না, তা যাচাই করবেন।’আমরা অনেককে গ্রেপ্তার করেছি, ‘সামনেও করব। আপনারাও সচেতন থাকবেন। আপনারা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে আসতে চান না। আমাদের কাছে আসলে আমরা যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার চেষ্টা করতে পাড়ব, আপনাদের সহযোগিতা দিতে পারব। যারা অভিযোগ করেছেন, আমরা ব্যবস্থা নিয়েছি। যাদের গ্রেপ্তার করেছি, আমরা তাদের রিমান্ডে আনছি। তাদের সঙ্গে আর কারা কারা জড়িত তা শনাক্ত করব।’রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৫ ভুয়া ডিবিকে গ্রেপ্তার করেছেন গোয়েন্দারা। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো—লিথুয় সুর, মো. হারুন, জোবায়ের হোসেন, পারভেজ মোহাম্মদ, আরিফ হোসেন ও খোকন চন্দ্র দেবনাথ। তারা দীর্ঘদিন ধরে রাজধানীতে ডিবি পরিচয়ে মানুষকে তুলে নিয়ে ছিনতাই করত।পাঁচ ভুয়া ডিবিকে গ্রেপ্তারের তথ্য উল্লেখ করে হারুন অর রশিদ  বলেন, ‘দুটি মাইক্রোবাস, একটি প্রাইভেট কার, হ্যান্ডকাফ ও পুলিশের জ্যাকেট পড়ে তারা দীর্ঘদিন ধরে রাজধানীতে ডিবি পরিচয়ে বিভিন্ন অপরাধ কার্যক্রম চালিয়ে আসছিলো।‘...


Jan 02, 2023

জাতীয়

তৃণমূল নেতাদের উদ্দেশ্যে নতুন বছরের শুভেচ্ছায় ছাত্রলীগের বার্তা

তৃণমূল নেতাদের উদ্দেশ্যে নতুন বছরের শুভেচ্ছায় ছাত্রলীগের বার্তা

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে ছাত্রলীগের কার্যালয়ে তৃণমূল নেতাদের উদ্দেশ্যে নতুন বছরের শুভেচ্ছায় একগুচ্ছ বার্তা দিয়েছেন ছাত্রলীগের নতুন সভাপতি সাদ্দাম হোসেন।বিশেষ বর্ধিত সভা রবিবার বিকাল ৩টা থেকে শুরু হয়ে টানা রাত ১টা শেষে, এ বিষয়ে গণমাধ্যমকে বিস্তারিত জানান ছাত্রলীগ সভাপতি।বাংলাদেশ ছাত্রলীগের এই বর্ধিত সভায় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ ওয়ালী আসিফ ইনান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি মাজহারুল কবির শয়ন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক তানভীর হাসান সৈকতসহ ছাত্রলীগের জেলা ও মহানগর ইউনিটের নেতৃবৃন্দ উপস্থিতিতে ছাত্রলীগের নতুন সভাপতি সাদ্দাম হোসেন বলেন, দেশরত্ন শেখ হাসিনা স্মার্ট বাংলাদেশের ধারণা তুলে ধরার পরে শিক্ষার্থী ও তরুণ প্রজন্মের কাছে জনপ্রিয় হয়েছে।স্মার্ট বাংলাদেশের ধারণা রাজনৈতিকভাবে বিজয়ী করা ছাত্র আন্দোলনের প্রধানতম দিকে পরিণত হয়েছে। তরুণদের মাঝে ছড়িয়ে দিতে সাংগঠনিক নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে তৃণমূল নেতাদের।বর্ধিত সভায় অংশ নেওয়া তৃণমূলের একাধিক নেতৃবৃন্দ বলেন, কেন্দ্রের দিকনির্দেশনা অনুযায়ী মাঠ পর্যায়ে ছাত্রলীগকে গতিশীল সংগঠনে পরিণত করা হবে। অনলাইন ও মাঠের রাজনীতিতে যুগপৎভাবে এগিয়ে নিয়ে যাবে ছাত্রলীগ।তৃণমূলের মতামতের গুরুত্ব সম্পর্কে ছাত্রলীগ সভাপতি সাদ্দাম হোসেন বলেন, ‘বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রান্তের সাংগঠনিক ইউনিটের নেতৃবৃন্দের মতামত গ্রহণ করেছি। সাংগাঠনিক কাজে অংশীদারমূলক নেতৃত্ব কেন্দ্র নিশ্চিত করতে চায়।’ছাত্র রাজনীতিকে স্মার্ট ও আধুনিক হতে হবে মন্তব্য করে সাদ্দাম হোসেন আরও বলেন, স্মার্ট বাংলাদেশের প্রশ্নে বাংলাদেশের ছাত্রসমাজ ও তরুণ প্রজন্মকে ঐক্যবদ্ধ করতে বছরের প্রথমদিনে বিশেষ বর্ধিত সভার আয়োজন করা হয়েছে।তিনি বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে শহর ও গ্রামের মাঝে বৈষম্য একেবারেই কমে এসেছে। প্রযুক্তিকে ব্যবহার করে সাবলম্বী হচ্ছে। ছাত্রলীগের কর্মীরাও যেন স্মার্ট উদোক্তা হয়ে উঠে। একইসঙ্গে শ্রম শিল্প থেকে মেশিননির্ভর শিল্পে বাংলাদেশের ছাত্রসমাজকে তৈরি করা প্রয়োজন।বিরোধীদলের উদ্দেশ্যে ছাত্রলীগের অবস্থান সম্পর্কে ছাত্রলীগ সভাপতি বলেন, খুনের রাজনীতি, জঙ্গিবাদের রাজনীতি, দুর্নীতিবাজদের পুনর্বাসন রাজনীতির বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে তাদের রাজনীতি থেকে মূলোৎপাটন করতে হবে। স্মার্ট বাংলাদেশের ধারণা নিয়ে তাদের রাজনৈতিকভাবে পরাজিত করতে হবে।তিনি বলেন, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের প্রসারের ফলে ফেসবুককে ব্যবহার করে ফেকনিউজ সংঘবদ্ধ চক্র গুজব-প্রোপাগান্ডা ছড়ায়। জনগণের থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে বিএনপি-জামায়াত গুজবের আশ্রয় নিয়ে প্রোপাগান্ডা ছড়াচ্ছে। এই গুজব-প্রোপাগান্ডার বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে হবে। ফেকনিউজের মাধ্যমে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা ছড়ায়।এসব বিষয়ে নেতাকর্মীদের কথা...


Dec 31, 2022

জাতীয়

নতুন বছরকে কেন্দ্র করে বিধি-নিষেধ আরোপ

নতুন বছরকে কেন্দ্র করে বিধি-নিষেধ আরোপ

সারাবিশ্বেই থার্টি ফার্স্ট বা নতুন বছরের প্রথম ক্ষণটি নানা অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে উদযাপন হয়। নতুন বছর ২০২৩  উদযাপন উপলক্ষে এসব অনুষ্ঠান ঘিরে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা এড়াতে ঢাকা মহানগর পুলিশ বরাবরের মতো কিছু বিধি-নিষেধ আরোপ করেছে।শনিবার সন্ধ্যা থেকে  ঢাকার সব বার বন্ধ করতে বলা হয়েছে; নিষিদ্ধ করা হয়েছে ফানুস ওড়ানো। উন্মুক্ত স্থানে কোনো ধরনের অনুষ্ঠান আয়োজনও নিষিদ্ধ করা হয়েছে । কোথাও কোনো ধরনের আতশবাজি কিংবা পটকা ফোটানো যাবে না বলেও জানিয়েছেন ডিএমপি কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক বলেন।২০২৩ সাল শুরুর আগের দিন শনিবার ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে ডিএমপি কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক বলেন, “নতুন বছরকে কেন্দ্র করে অনেকেই ফানুস ওড়ান। আমরা এটা ওড়াতে নিষেধ করছি, কারণ এটার কারণে অনেক দুর্ঘটনা ঘটে। এটা কেউ ওড়ালে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”শনিবার সন্ধ্যা ৬টা থেকে পরের দিন সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ঢাকা মহানগরীর সব বার বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে বলে জানান গোলাম ফারুক।ডিএমপি  কমিশনার আরও বলেন, বিভিন্ন আবাসিক হোটেল, রেস্তোরাঁ ও উৎসবস্থলে লাইসেন্সকৃত আগ্নেয়াস্ত্রও বহন করা যাবে না। উন্মুক্ত স্থানে কোনো ধরনের অনুষ্ঠান, সমাবেশ, কোনো সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান কিংবা ডিজে পার্টি আয়োজন করা যাবে না । তবে ইনডোর অনুষ্ঠান করা যাবে বলে জানান তিনি।বিনোদন কেন্দ্র হাতিরঝিল এলাকায় হৈ হুল্লোড়, সীমা অতিক্রম করে গাড়ি চালানো, মোটর সাইকেলে রেস করা যাবে না এবং গুলশান, বনানী ও বারিধারা এলাকায় রাত ৮টার পর বহিরাগতদের প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না। এসব এলাকায় বসবাসরতদের নির্ধারিত সময়ের পর কামাল আতাতুর্ক এভিনিউ (কাকলী ক্রসিং) এবং মহাখালী ক্রসিং ব্যবহার করার অনুরোধ জানান ডিএমপি কমিশনার।ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় সন্ধ্যা ৬টার পরে বহিরাগত কোনো ব্যক্তিকে বা যানবাহন প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না বলে জানিয়ে ডিএমপি কমিশনার বলেন, “শুধুমাত্র ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টিকারযুক্ত যানবাহন পরিচয় প্রদান সাপেক্ষে প্রবেশ করতে পারবে।”রাত ৮টার মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষক-শিক্ষার্থী-কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় প্রবেশ করার অনুরোধও করেন তিনি।এসব বিধি-নিষেধের কথা জানিয়ে ডিএমপি কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক বলেন, “এর ব্যতয় ঘটলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”...


Nov 21, 2022

রাজধানী

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই জঙ্গিকে ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনায় পাঁচ পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই জঙ্গিকে ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনায় পাঁচ পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত

পুরান ঢাকার জনাকীর্ণ আদালত থেকে নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের (আনসারুল্লাহ বাংলা টিম)  মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই জঙ্গিকে ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনায় পাঁচ পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।সাধারণ আসামিদের মতো পৃথক হ্যান্ডকাপে বেঁধে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত বেশ কয়েক জঙ্গি আসামিকে আদালতে আনা হয়। যাদের নিরাপত্তায় অতিরিক্ত পুলিশ কিংবা তাদের ডাণ্ডাবেড়ি পরানো ছিল না। এই জঙ্গিদের মোহাম্মদপুর থানার সন্ত্রাসবিরোধী আইনের একটি মামলায় কারাগার থেকে আদালতে আনা হয়েছিল।রোববার ভরদুপুরে পুরান ঢাকার জনাকীর্ণ আদালত থেকে নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের (আনসারুল্লাহ বাংলা টিম) নেতা মইনুল হাসান শামীম ওরফে সামির ওরফে ইমরান এবং আবু সিদ্দিক সোহেল ওরফে সাকিব ওরফে সাজিদ ওরফে শাহাবকে ছিনিয়ে নিয়ে যায় তাদের সহযোগীরা।দুই জঙ্গিকে ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনায় পাঁচ পুলিশ সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। সাময়িক বরখাস্তরা হলেন- সিএমএম আদালতের হাজতখানার কোর্ট ইন্সপেক্টর মতিউর রহমান, হাজতখানার ইনচার্জ এসআই নাহিদুর রহমান, আসামিদের আদালতে নেওয়ার দায়িত্বে থাকা পুলিশের এটিএসআই মহিউদ্দিন, কনস্টেবল শরিফুল হাসান ও কনস্টেবল আব্দুস সাত্তার। আজ সোমবার (২১ নভেম্বর) দুপুরে ডিএমপির প্রসিকিউশন বিভাগের উপপুলিশ কমিশনার জসিম উদ্দিন গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান।এদিকে আজ দুপুর সাড়ে ১২টায় ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার (ডিবি) হারুন-অর-রশীদ বলেন, জঙ্গি ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনার সঙ্গে জড়িতরা নজরদারিতে রয়েছেন। সবাইকে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।তিনি বলেন, যেকোনো সময় তাদের গ্রেপ্তার করা হবে। আসামিরা যাতে পালাতে না পারে সেজন্য ইতোমধ্যে পুলিশ প্রধান রেড অ্যালার্ট জারি করেছে। এছাড়া জঙ্গিদের আনা-নেওয়ার ক্ষেত্রেও সতর্কতা অবলম্বন করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনাল শুনানি শেষে হাজতখানায় নেওয়ার সময় পুলিশের দিকে ‘স্প্রে মেরে’ তাদেরকে ছিনিয়ে নেওয়া হয়। শামীম ও সিদ্দিক দুজনই প্রকাশনীর প্রকাশক ফয়সল আরেফিন দীপন হত্যা মামলায় মৃতুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি। লেখক অভিজিৎ রায় হত্যা মামলাতেও আবু সিদ্দিক সোহেলের ফাঁসির রায় হয়েছে।এক সুত্রে জানা জায়,আনসার আল ইসলামের শীর্ষ নেতা সেনাবাহিনীর বরখাস্ত মেজর সৈয়দ জিয়াউল হকের নির্দেশে জঙ্গিরা পুলিশের ওপর হামলা চালিয়ে আসামিদের ছিনিয়ে নেওয়ার পরিকল্পনা করে। সে অনুযায়ী দুটি মোটরসাইকেলে অজ্ঞাতনামা ৫/৬ জন সদস্য অবস্থান নেয়।এছাড়া আরও ১০/১২ জন আনসার আল ইসলামের...